চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে খেলা, মামলাকারীদের তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

112

কলকাতা: চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে খেলা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ তুলে যাঁরা মামলা করেছেন, তাঁদের উদ্দেশ্যে কড়া ভাষায় তোপ দেগেছেন তিনি।

উচ্চ প্রাথমিকে সাড়ে ১৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে বুধবার অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের ওয়েবসাইটে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ইন্টারভিউয়ের তালিকা প্রকাশিত হয়েছিল। কিন্তু মামলাকারীদের অভিযোগ, নিয়ম মেনে ইন্টারভিউয়ের তালিকা তৈরি হয়নি। তাঁদের পক্ষের আইনজীবী ফিরদৌস শামিম জানান, নিয়ম মেনে শিক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে না। অনেকে বেশি নম্বর পাওয়ার পরও ইন্টারভিউয়ে ডাক পাচ্ছেন না। মামলাকারীদের আবেদনের ভিত্তিতেই শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। ৯ জুলাই মামলার পরবর্তী শুনানি। তারপরই এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে বিষয়টি নিয়ে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী। শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত হওয়ায় ক্ষুব্ধ তিনি। মুখ্যমন্ত্রী জানান, আইনগত বাধা কাটিয়েই শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ে পদক্ষেপ করা হয়েছিল। কিন্তু তারপর ফের মামলা করা হল।

- Advertisement -

মামলাকারীদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর তোপ, নিয়োগ নিয়ে মামলা করা ঠিক নয়। যখনই নিয়োগ হচ্ছে, তখনই মামলা হচ্ছে। চাকরিপ্রার্থীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে খেলা করা হচ্ছে। এটা উচিত নয়।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে সাড়ে ৩১ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, পুজোর আগে প্রাইমারি এবং আপার প্রাইমারি মিলিয়ে রাজ্যে সাড়ে ২৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ হবে। আর পুজোর পর নিয়োগ হবে আরও ৭ হাজার। অর্থাৎ রাজ্যে মোট ৩১ হাজার ৫০০ শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। কিন্তু এদিন উচ্চ প্রাথমিকে সাড়ে ১৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ জারি করেছে হাইকোর্ট।