পঞ্চানন বর্মার জন্মদিনে সরকারি ছুটি থাকবে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

805

অনলাইন ডেস্ক: বিরসা মুন্ডার পর এবার পঞ্চানন বর্মার জন্মদিনকে সরকারি ছুটি হিসেবে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। রবিবার বাঁকুড়ায় প্রশাসনিক বৈঠক থেকে একথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার বিকেলে বাঁকুড়ায় রবীন্দ্রভবনের প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাকে বেনজির আক্রমণ করার পাশাপাশি রাজ্যের নানা প্রকল্পের সুবিধা সাধারণ মানুষ ঠিকঠাক পাচ্ছেন কিনা তা খতিয়ে দেখেন তিনি। এরপরই মমতা বলেন, আমরা আগেই নেতাজি, বীরসা মুন্ডা, পঞ্চানন বর্মা-সহ একাধিক মনীষীর নামে বিশ্ববিদ্যালয় করেছি। অনেকদিন থেকেই পঞ্চানন বর্মার জন্মদিনে ছুটি ঘোষণা ইচ্ছা ছিল। এটা হয়ে গেলে খানিকটা নিশ্চিন্ত।

- Advertisement -

এদিন বাগদি, বাউরি ও মতুয়া কালচারাল বোর্ডের সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য দেন মুখ্যমন্ত্রী। এই বোর্ডগুলির সদর দপ্তরের স্থান ঘোষণার পাশাপাশি দায়িত্ব বণ্টন সম্পর্কেও মন্তব্য করেন তিনি। বাগদি, বাউরি ও মতুয়া কালচারাল বোর্ডের সদর দপ্তর হবে যথাক্রমে বাঁকুড়া, বর্ধমান ও ঠাকুরনগরে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মতুয়ারা পাবেন ১০ কোটি। এছাড়া বাউরি ও বাগদিরা পাবেন ৫ কোটি টাকা করে পাবেন। তবে প্রশাসনিক বৈঠকে নেতাদের আবদার শুনে একবার মেজাজও হারান তিনি। তিনি বলেন, সব সময় দাও আর দাও। এত টাকা কোথা থেকে আসবে? বাঁকুড়ার জন্য অনেক করেছি। সামনে ভোট আসছে। আগে ভাল করে ভোট করাও, তারপর বাকি সব হবে।

প্রসঙ্গত, সোমবার বাঁকুড়ার খাতড়ায় প্রশাসনিক জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী আদিবাসী বীর বিরসা মুন্ডার জন্মদিনকে সরকারি ছুটি হিসেবে ঘোষণা করেন। ওই সভা থেকেও অমিত শাকে নিশানা করেন মমতা। তিনি বলেন, তুমি বিদ্যাসাগরের মূর্তি গিয়ে ভেঙে আসবে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলে আরেকজনের গলায় মালা দিয়ে আসবে। তুমি বিরসা মুন্ডা বলে আরেকজনের গলায় মালা দিয়ে আসবে সেটা হবে না। এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, এবার থেকে বিরসা মুন্ডার জন্মদিনেও রাজ্যে ছুটি থাকবে। তাঁকে সম্মান জানিয়ে এই কাজটা আমরা করতে চাই। অন্য মনীষীদের মতো বিরসা মুন্ডার জন্মদিনেও আগামী বছর থেকে ছুটি থাকবে।