বাঁকুড়া সফরে মুখ্যমন্ত্রী, সেখান থেকেই মোদির সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক

256

বাঁকুড়া: পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ঠিক ছিল, সোমবার যাবেন। কিন্তু, আচমকা সেই সফরসূচিতে পরিবর্তন। কারণ, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঙ্গলবারের ভার্চুয়াল বৈঠক। তাই, রবিবার বাঁকুড়া জেলায় পৌঁছে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতা থেকে এ দিন দুপুরে চপারে তিনি মুকুটমণিপুরে পৌঁছন। যদিও আজ সোমবার থেকে শুরু হতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জেলা সফর। প্রথম দিন খাতড়ায় এক সরকারি জনসভায় যোগ দেবেন তিনি। ২৫ নভেম্বর ফিরবেন কলকাতায়।

এদিকে আজ আর কিছুক্ষণের মধ্যেই খাতড়ার সিধো – কানহো ময়দানে সরকারি জনসভায় যোগ দেবেন মুখ্যমনন্ত্রী। সেখানে একাধিক সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। একই সঙ্গে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা তুলে দেবেন সাধারণ মানুষের কাছে।

- Advertisement -

২৪ তারিখ মঙ্গলবার বাঁকুড়ার রবীন্দ্রভবনে প্রশাসনিক বৈঠক। তার আগে মঙ্গলবারই করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে জেলাপ্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলবেন সরকারি প্রকল্পের অগ্রগতি নিয়ে। এরপর ২৫ তারিখ বুধবার দলীয় জনসভা করার সম্ভাবনা।

মুখ্যমন্ত্রীর এই সফরকে তীব্র কটাক্ষ করেছে বিরোধীরা। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন,মুখে কালি লেগেছে। দলের সাংসদ-বিধায়করা নিজেদের মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়ি করছে। তাই মমতাকে দৌঁড়ে বেড়াতে হচ্ছে।

দু’পক্ষকেই একযোগে আক্রমণ করেছে সিপিআইএম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রবিন দেব। তিনি বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী সফরে যাবেন। এর মধ্যে দিলীপ বাবু আশ্চর্য় হচ্ছেন কেন। তাঁরাও তো কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে জেলায় জেলায় পাঠাচ্ছেন। তৃণমূল-বিজেপি দুই দলের পায়ের তলার জমি নেই। তাই জেলা সফরে ছুটছেন।

পাল্টা উত্তর দিয়েছে তৃণমূল। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, দিলীপবাবু আগে নিজের দলের কোন্দল সামলান।

বছর ঘুরলেই পশ্চিমবঙ্গে একুশের বিধানসভা ভোট। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের ফলের নিরিখে, বাঁকুড়া জেলার ১২টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১২টিতেই এগিয়ে ছিল বিজেপি।

এই প্রেক্ষিতে চলতি মাসে ৫ তারিখ বাঁকুড়া সফরে যান বিজেপির প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। সেখানকার সভা থেকে ২০০ আসনের টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন তিনি। এবার একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়ে বাঁকুড়ায় পা রাখলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।