উঠান ঝাঁটা দেওয়াকে কেন্দ্র করে বচসা, কাঁটারির আঘাতে জখম বধূ

0
177
- Advertisement -

বর্ধমান: উঠান ঝাঁট দেওয়া নিয়ে অশান্তি চলাকালীন জায়ের কাঁটারির আঘাতে গুরুতর জখম হলেন এক বধূ। শুক্রবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের ভাতার থানার বড়পোশলা গ্রামে। এই ঘটনা বিষয়ে জখম বধূ ববিতা ঘোরুই এদিন ভাতার থানায় তাঁর জা অপর্ণা ঘোরুইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও অভিযুক্ত এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বড়পোশলা গ্রামে বসবাস করেন মথুরা ঘোরুই। তাঁর সৎ ভাই কাশীনাথের স্ত্রী অপর্না ঘোরুই। তাঁরা পৃথকভাবে একই বাড়িতে বসবাস করেন। দুই পরিবার বাড়ির উঠানটি যৌথভাবে ব্যবহার করেন। পালা করে দুই পরিবার উঠান ঝাঁট দেন। ববিতা ঘোরুইয়ের অভিযোগ তিনি পরপর কয়েক দিন উঠান ঝাঁট দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু তাঁর জা উঠান ঝাঁট দেবার ব্যাপারে অনিহা দেখিয়ে চলেছে। জা কে এদিন তিনি ঝাঁট দেবার কথা বললে সে তাঁর সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে দেয়।

অভিযোগ ঝগড়া চলাকালীন অপর্ণা একটি কাটারি নিয়ে ববিতাদেবীর কপালে আঘাত করে। তাতে জখম হন ববিতাদেবী। ঘটনার সময়ে ববিতাদেবীর স্বামী মথুরা বাড়িতে ছিলেন না। মথুরাবাবু বাড়ি ফেরার পর তিনি তাঁর জখম স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যান। তারপর থানায় গিয়ে ববিতাদেবী তাঁর জা অপর্ণা ঘোরুইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে অপর্ণা ঘোরুই দাবি করেন, ঝগড়া চলাকালীন প্রথম ববিতা তাকেই উল্টো মারধর করে। ওই সময়ে তিনি আত্মরক্ষা করতে গেলে ববিতার কপাল ফেটে যায়। অন্যদিকে, পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত অপর্ণা ঘোরুইয়ের খোঁজ চালানো হচ্ছে।

- Advertisement -