নিম্নমানের রাস্তার তৈরির অভিযোগ, কাজ বন্ধ করলেন স্থানীয়রা

118

হরিশ্চন্দ্রপুর: নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির অভিযোগে কাজ বন্ধ করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি ঘটেছে‌ বুধবার হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নম্বর ব্লকের কুশিদা গ্রাম পঞ্চায়েতের কুশিদা গ্রামে। স্থানীয়দের অভিযোগ, কুশিদা থেকে গোহিলা পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের গ্ৰামোন্নয়ন দপ্তর কর্তৃক ৬৬ লক্ষ টাকা বরাদ্দে ১৩ কিলোমিটার রাস্তা পাঁকা হচ্ছে। ঠিকাদার সংস্থা সিডিউল ছাড়াই নিম্নমানের বালি, গুনগতমান নষ্ট হয়ে যাওয়া সিমেন্ট ও মোটা পাথর দিয়ে কাজ শুরু করেছে।‌

এমনকি আট ইঞ্চি ঢালাইয়ের পরিবর্তে মাত্র তিন ইঞ্চি ঢালাই করছে। পূর্বের‌ ঢালাই করা রাস্তাটি না ভেঙে তার উপরে ঢালাই শুরু করেছে। ম্যানেজারের কাছে অভিযোগ জানালে কোনও কর্ণপাত করেনি। সিডিউল দেখতে চাইলে তাও দেখাতে অস্বীকার করেন। তাই তারা এদিন নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। যতক্ষণ না নির্মাণ কাজের সিডিউল দেখাচ্ছে ও নিম্নমানের সামগ্রী বাদ দিচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত কাজ বন্ধ থাকবে বলে জানান স্থানীয়রা।

- Advertisement -

তৃণমূলের কুশিদা অঞ্চল প্রেসিডেন্ট প্রকাশ দাস জানান, কুশিদা অঞ্চল অফিস থেকে শুরু করে গহিলা পর্যন্ত মোট ১৩ কিলোমিটার রাস্তা পাকা হওয়ার কথা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা থেকে। আজকে কাজ শুরু হয় আমরা দেখতে পেলাম অত্যন্ত নিম্নমানের সামগ্রী এবং সিডিউল না মেনে কাজ শুরু করার প্রচেষ্টা করা হয়েছিল। মাপ মত ঢালাই করা হচ্ছিল না। সিমেন্ট এবং বালির গুণগতমান অত্যন্ত খারাপ। আমরা এবিষয়ে কুশিদা গ্রাম পঞ্চায়েতে অভিযোগ করেছি। আপাতত কাজ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

কুশিদা অঞ্চলের তৃণমূলের মাইনরিটি সেলের প্রেসিডেন্ট সোহেল দিদার জানান, ঢালাই রাস্তার কাজ ৮ ইঞ্চি হওয়ার কথা সেখানে ৩ ইঞ্চি ঢালাই করছে কনট্রাক্টর। সিডিউল দেখতে চাইলে কনট্রাক্টর সিডিউল দেখাতে নারাজ। তাছাড়া সাদা বালির ব্যবহার করা হচ্ছে। যেটা কখনোই আইনসম্মত নয়। আমরা এজন্যই রাস্তার কাজ নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছি।

কুশিদা অঞ্চলের প্রধান আখতারি বিবি জানান, এলাকাবাসীরা আমার কাছে এই রাস্তার কাজ নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছে। আমি এবিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। সমস্ত বিষয়টি ব্লক প্রশাসন সহ অন্যান্য কর্তৃপক্ষকে আমরা অবগত করেছি। যদিও এপ্রসঙ্গে কনট্রাক্টরি সংস্থার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক মুখ খুলতে নারাজ।