ছাত্রকে মারধর ও চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

337

রায়গঞ্জ ২৭ জুলাইঃ  এক স্কুল ছাত্রকে অমানবিক ভাবে মারধর ও চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল রায়গঞ্জের একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার। তার জেরে শনিবার দুপুরে ওই ছাত্রকে সঙ্গে নিয়ে অভিভাবকরা হাজির হয় প্রধান শিক্ষকের কাছে। অভিভাবকদের প্রতিবাদের জেরে স্কুল চত্বরে সাময়িক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। অপ্রীতিকরঘটনা এড়াতে স্কুল ক্যাম্পাসে মোতায়েন ছিল পুলিশ।
অভিযোগ, একাদশ শ্রেণির বাণিজ্য বিভাগের এক ছাত্রকে বেত দিয়ে মারধর করেছে পাশাপাশি কেঁচি দিয়ে চুল কেটে দেয় প্রধান শিক্ষক। ছাত্রের মায়ের অভিযোগ, স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পর দেখেন ছেলের মাথার সামনের দিকের চুল কাটা। গায়ে লাঠি দিয়ে মারার কালশিটে দাগ।  তিনি জানান, ছেলে অপমানে বারবার আত্মহত্যার চেষ্টা করছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘ওই ছাত্রের চুল বড় বড় ছিল, সেই চুলে আবার কালারিং করেছে সেই কারণে ওই ছাত্রের চুল আমি কেটে দেই।‌ তবে মারধরের যে অভিযোগ করা হচ্ছে সেটা ঠিক নয়’।