জোট বাঁচাতে গতবারের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাইলেন কংগ্রেস প্রার্থী

125

রায়গঞ্জ: গত লোকসভা নির্বাচনে জোটধর্ম পালনের ক্ষেত্রে ‘বিশ্বাসঘাতকতা’ করায় বামফ্রন্টের কর্মীদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস সভাপতি তথা রায়গঞ্জ বিধানসভা আসনের প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্ত। ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে জোটধর্ম ভেঙে কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাশমুন্সিকে রায়গঞ্জ কেন্দ্রে দাঁড় করিয়েছিলেন তিনি। ফলে লোকসভা নির্বাচনে রায়গঞ্জ আসনে সিপিএম প্রার্থী মহম্মদ সেলিম হেরে যান। ক্ষোভ তৈরি হয় সাধারণ বামকর্মীদের মধ্যে। সেই ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করতে প্রকাশ্যেই সিপিআইএম কর্মীদের কাছে ক্ষমা চাইলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত।

গত শনিবার বাম-কংগ্রেসের কর্মীসভায় সেই ভুলের কথা স্বীকার করে বাম-কংগ্রেস জোটের কর্মীসভায় প্রকাশ্যে ক্ষমা চান উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেসের সভাপতি তথা রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বাম-কংগ্রেস জোটের কংগ্রেস প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্ত। সিপিএম তথা বামফ্রন্ট কর্মীদের কাছে এভাবে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব ক্ষমা চাওয়ায় কিছুটা বরফ গলে বামকর্মীদের।

- Advertisement -

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বাম-কংগ্রেস জোটের প্রার্থী হিসেবে কংগ্রেসের মোহিত সেনগুপ্ত রায়গঞ্জ বিধানসভা আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন। সেই সময় বামকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্তের প্রচারে। জয়ী করেছিলেন মোহিত সেনগুপ্তকে। প্রায় ৫১ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দেখা যায়, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে জোটধর্ম ভেঙে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে সিপিআইএম প্রার্থী মহম্মদ সেলিমের বিরুদ্ধে দীপা দাশমুন্সিকে প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করান মোহিতবাবু। ফলে রায়গঞ্জ কেন্দ্রে হেরে যান সিপিএমএর সাংসদ মহম্মদ সেলিম। মেনে নিতে পারেননি সিপিএম কর্মীরা। এবারের নির্বাচনে উচিত শিক্ষা কংগ্রেসকে দেবে বলে নীচু তলার বামকর্মীরা মনস্থ করে ফেলেন।

জোটের প্রার্থী হিসেবে রায়গঞ্জ বিধানসভা আসনে এবারও কংগ্রেস প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্ত। এবছর কংগ্রেস সাংগঠনিকভাবে অনেকটাই দুর্বল। তাদের নির্ভর করতে হবে বামেদের ওপর। তাই আগে থেকেই ক্ষোভ প্রশমনে উদ্যেগী হলেন মোহিতবাবু। সিপিএম কর্মীদের এই ক্ষোভ প্রশমনে এবার প্রকাশ্যে ক্ষমা চান তিনি। মোহিতবাবু বলেন, ‘আমরা একটা পরিবার। গত লোকসভা নির্বাচনে আমরা অনেক কিছু বলেছি। বামেরাও বলেছে। আগামীদিনে যাতে আর ভুল বোঝাবুঝি না থাকে সেজন্য ক্ষমা চেয়েছি। আমরা একসঙ্গে লড়াই করে ফ্যাসিস্ট তৃণমূল ও সাম্প্রদায়িক বিজেপিকে রুখব।’

সিপিএমের জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য উত্তম পাল বলেন, ‘২০১৬ সালে আমরা কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে লড়েছি। গত লোকসভা নির্বাচনে তাদের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। সেসব মিটে গিয়েছে। আমরা একসঙ্গেই নির্বাচনে লড়াই করব। ক্ষমা না চাইলেও হত।’