পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে ট্রেনভাড়া দেবে কংগ্রেস, কটাক্ষ বিজেপির

261

নয়াদিল্লি: পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে উদ্যোগী হল কংগ্রেস। পরিযায়ী ও দুঃস্থ শ্রমিকদের ঘরে ফেরার জন্য ট্রেনভাড়া দেবে প্রতিটি রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি। সোমবার বিবৃতি দিয়ে একথা জানালেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি। যদিও কংগ্রেসের এই উদ্যোগকে নাটক বলে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। এদিকে, রেলমন্ত্রক সূত্রের খবর, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরার জন্য ট্রেনভাড়া ৮৫ শতাংশ মকুব করা হবে। বাকি টাকা সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারকে বহন করতে হবে।

বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেছেন সনিয়া। তিনি বলেন, ‘বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের কেন্দ্র সরকার বিনা পয়সায় বিমানে করে দেশে ফিরিয়ে আনছে। গুজরাটে একদিনের একটি অনুষ্ঠানে ১০০ কোটি টাকা খরচ করছে কেন্দ্র সরকার। রেলমন্ত্রকও করোনা মোকাবিলায় পিএম কেয়ারস ফান্ডে ১৫১ কোটি দিচ্ছে। সেখানে দাঁড়িয়ে দুঃস্থ ও পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফিরতে কেন ট্রেনভাড়া দিতে হবে। লকডাউনের কারণে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বহু শ্রমিক আটকে পড়েছেন। তাঁদের কাছে খাবার ও অর্থ নেই। তাঁরা বাড়ি ফিরতে পারছেন না। তাই আমরা পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছি।’

- Advertisement -

উল্লেখ্য, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেলমন্ত্রক। কিন্তু ট্রেনভাড়া দিতে হবে শ্রমিকদেরই-রেলমন্ত্রকের এমন সিদ্ধান্ত ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়। লকডাউনের মাঝে কাজ হারিয়ে যেখানে শ্রমিকরা দু’বেলা দুমুঠো খাবার জোগার করতে পারছেন না, সেখানে দাঁড়িয়ে শ্রমিকদের পক্ষে ট্রেনভাড়া জোগার করা কার্যত অসম্ভব। তাই রেলমন্ত্রকের ওই সিদ্ধান্তে কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকায় প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। এই পরিস্থিতিতে সোমবার পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে দাঁড়ানোর কথা জানিয়েছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি।

অন্যদিকে, সোমবার মুর্শিদাবাদের কংগ্রেস সাংসদ তথা লোকসভার বিরোধী দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী এক প্রেস বিবৃতিতে বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার লকডাউন করেছিল, তাই আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর দায়িত্বও কেন্দ্রের। কিন্তু সরকার তাঁদের ঘরে ফেরার জন্য কোনও আর্থিক সাহায্য করছে না। কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি সেজন্য ঘোষণা করেছেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরার খরচ বহন করবে কংগ্রেস। মানুষের পাশে কংগ্রেস সব সময় ছিল, আছে ও থাকবে।’ একইসঙ্গে অধীরবাবু অন্য রাজনৈতিক নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনও রাজনীতি নয়, এখন সবাইকে মানুষের পাশে থাকতে হবে। রাজনীতি পরেও করা যাবে।’

এদিকে, কংগ্রেসের জেলা সভাপতিদের পরিযায়ী শ্রমিকদের তালিকা প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। সেই নির্দেশিকায় তিনি জানান, কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির নির্দেশ অনুযায়ী ভিনরাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের ঘরে ফেরার খরচ সংশ্লিষ্ট প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি বহন করবে।