কোচবিহারে পাঁচ বছরের মধ্যে সব বাড়িতে পানীয় জলের সংযোগ

345

চাঁদকুমার বড়াল, কোচবিহার : আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে কোচবিহার জেলার সমস্ত বাড়িতে পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু করল জেলা জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর। রাজ্য সরকারের জলস্বপ্ন প্রকল্পের মাধ্যমে এই কাজ শুরু হয়েছে জেলায়। ২০২৪ সালের মধ্যে জেলার ৬ লক্ষ পরিবারের প্রত্যেকের বাড়িতে সংযোগ দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই প্রায় দুহাজার বাড়িতে সংযোগ দেওয়া হয়েছে। সরকারের এই উদ্যোগে খুশি জেলার মানুষ। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের কোচবিহার জেলার এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার নিত্যানন্দ আচার্য বলেন, জেলার সমস্ত বাড়িতে পানীয় জলের কানেকশন দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এই কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। এর জন্য জোরকদমে কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

কোচবিহার জেলায় ১২৮টি গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে। এখানে প্রায় ৬ লক্ষ পরিবার বাস করে। জেলার সমস্ত গ্রামে কিন্তু এখনও পরিস্রুত পানীয় জলের কোনও ব্যবস্থা নেই। যা নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে বাসিন্দাদের মধ্যে। জেলার প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের পরিষেবা পান। বাকি ৪০ শতাংশ মানুষের কাছে পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছোয়নি। পানীয় জলের দাবি নিয়ে তাঁরা একাধিকবার সোচ্চার হয়েছেন। কোচবিহার জেলায় বর্তমানে জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের ৯৭টি প্রকল্প চলছে। এর পাশাপাশি জেলার বেশ কিছু গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনে আরও ৪২টি প্রকল্প রয়েছে। এই প্রকল্পগুলো দিয়ে মোট গ্রামীণ জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ মানুষ পরিষেবা পান।

- Advertisement -

রাজ্যের নতুন জলস্বপ্ন প্রকল্পের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি সংযোগ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে জেলায়। ইতিমধ্যে দুহাজারের বেশি বাড়িতে সংযোগ দেওয়া হয়েছে। বাকি বাড়িগুলিতেও সংযোগ দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের প্ল্যানিং সেকশন আরও প্রকল্প করে সব গ্রামে জল পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনানিচ্ছে। এর জন্য রাজ্যের কাছে কিছু প্রকল্পের তালিকা তৈরি করে পাঠানো হয়েছে। সেগুলোর অনুমোদন হলে কাজ শুরু হবে। পাশাপাশি জলস্বপ্ন প্রকল্পের মাধ্যমেও বাড়ি বাড়ি সংযোগ দেওয়ার কাজ চলবে। সব মিলিয়ে ২০২৪ সালের মধ্যে জেলার সমস্ত গ্রামে এবং বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার টার্গেট নিয়েছে জনস্বাস্থ্য দপ্তর।