কোভিড হাসপাতালের পাশেই কন্ট্রোলরুম, পরিদর্শনে আধিকারিকরা

252

পুরাতন মালদা: পুরাতন মালদার কোভিড-১৯ হাসপাতালের পাশেই একটি ভবনে আপৎকালীন কন্ট্রোলরুম খুলতে চলেছে মালদা জেলা প্রশাসন। এমনটাই জানা গিয়েছে প্রশাসন সূত্রে। বুধবার ওই ভবন পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তারা। ওই ভবন থেকেই কোভিড হাসপাতালের যাবতীয় কার্যকলাপ নিয়ন্ত্রণ করা হতে পারে বলে খবর।

পুরাতন মালদার কোভিড-১৯ ও সারি হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের দায়িত্ব ও কাজকর্ম নিয়ন্ত্রণ করতে এবং হাসপাতালে সামগ্রিক পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে একটি কন্ট্রোলরুম খোলার কাজ শুরু করল জেলা প্রশাসন। এজন্য ওই হাসপাতালের পাশেই একটি ভবন চিহ্নিত করার কাজ শুরু করা হয়েছে। শুধুমাত্র স্বাস্থ্য দপ্তর নয় করোনা সংক্রান্ত প্রশাসনের আংশিক কাজকর্ম ওই ভবন থেকে করা হতে পারে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ৭৪ জনকে কোয়ারান্টিনে পাঠাল স্বাস্থ্য দপ্তর

এদিন ওই ভবন পরিদর্শনে যান মালদা জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক (সাধারণ) অশোক কুমার মোদক, মালদা জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ভূষণ চক্রবর্তী। সঙ্গে ছিলেন মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা সমেত পুলিশ আধিকারিকরা। ন্যাশনাল স্কিল ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের ওই চারতলা ভবনটি ঘুরে দেখেন তাঁরা। সেখানেই প্রশাসনিক কাজকর্ম ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কাজকর্ম করার জন্য পরিকাঠামোগত সুবিধা খতিয়ে দেখা হয়।

জানা গিয়েছে, কোভিড হাসপাতালে রোগীদের বিবরণ ও তালিকা তৈরি করা, চিকিৎসকদের দায়িত্ব বণ্টন এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের কাজকর্ম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য কন্ট্রোলরুম থেকে করা হবে। খুব শীঘ্রই ভবনটি প্রস্তুত করার কাজ শুরু হবে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: ভিডিও কনফারেন্সে রোগীর সঙ্গে কথা বলছেন আত্মীয়রা

এদিন সংবাদমাধ্যমের সামনে বিস্তারিত কিছু বলতে না চাইলেও অতিরিক্ত জেলাশাসক জানিয়েছেন, প্রশাসনিক ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কাজের জন্যই পরিদর্শনে এসেছেন তাঁরা। বর্তমানে ওই ভবনটিতে যাঁরা অস্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তাঁদেরও সেখান থেকে অন্যত্র সরানো হতে পারে। এদিকে কোভিড হাসপাতালকে ঘিরে যাতে কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য ওই হাসপাতালের চারিদিক টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে ফেলেছে পুলিশ। হাসপাতালের সামনে বসানো হয়েছে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প। যদিও এখনও পর্যন্ত পরিকাঠামো সম্পূর্ণ না হওয়ায় করোনা বা সারি চিকিৎসা ওই হাসপাতালে শুরু করা যায়নি বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর। তবে খুব শীঘ্রই হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা চালু হতে পারে। সেজন্যই হাসপাতালের পাশেই একটি কন্ট্রোলরুম খোলার তৎপরতা শুরু হয়েছে।