করোনাবিধি উড়িয়ে চাঁচল কলেজে টিএমসিপির প্রতিষ্ঠা দিবস পালন, বিতর্ক

241

চাঁচল: করোনাবিধি উড়িয়ে চাঁচল কলেজে পালিত হল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ (টিএমসিপি)-এর প্রতিষ্ঠা দিবস। এই উপলক্ষ্যে শনিবার কলেজ চত্বরে ভিড় করেন ছাত্রছাত্রীরা। অভিযোগ, অধিকাংশের মুখেই মাস্ক ছিল না। বজায় ছিল না স্বাস্থ্যবিধি। এদিনের অনুষ্ঠানে উচ্চস্বরে বক্সও বাজানো হয়। কলেজ চত্বরে করোনাবিধি অমান্য করে রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনের প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই বিতর্ক শুরু হয়েছে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে বিজেপি, এসএফআই ও কংগ্রেস। কলেজ কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তবে টিএমসিপির জেলা সাধারণ সম্পাদক বাবু সরকারের দাবি, অভিযোগ ঠিক নয়।

প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে এদিন চাঁচল কলেজে টিএমসিপি নেতা, কর্মীদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আব্দুর রহিম বকসি, দলের চাঁচল-১ ব্লক সভাপতি শচীদানন্দ চক্রবর্তী, মালদা জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ‍্যক্ষ এটিএম রফিকুল হোসেন প্রমুখ।

- Advertisement -

বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর রাম বলেন, ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সর্বজনীন। সেখানে এই ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচির অনুমতি দেওয়া ঠিক হয়নি। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই। শাসকদল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে নিজেদের সম্পত্তি মনে করছে।’

সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য জামিল ফিরদৌসের অভিযোগ, ‘চাঁচল কলেজ এখন টিএমসিপির কার্যালয়ে পরিণত হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষ কীভাবে এই ধরনের রাজনৈতিক অনুষ্ঠানের অনুমতি দিল, সেটাই বড় প্রশ্ন। আমরা উচ্চ শিক্ষা দপ্তরে এবিষয়ে অভিযোগ জানাব।’ কংগ্রেসের চাঁচল-১ ব্লক সভাপতি আনজারুল হক জনির কটাক্ষ, এটাই শাসকদলের সংস্কৃতি।

তবে টিএমসিপির জেলা সাধারণ সম্পাদক বাবু সরকারের দাবি, অভিযোগ ঠিক নয়। কলেজ কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই কলেজ হলে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সকলের মুখে মাস্ক ছিল। স্বাস্থ‍্যবিধি মেনে প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হয়েছে।

চাঁচল কলেজের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক অজিত বিশ্বাসকে কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ না করায় তাঁর প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবে কলেজের প্রশাসক তথা এসডিও কল্লোল রায় বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। ভারপ্রাপ্ত শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে দেখছি।‘