‘৩০ শতাংশ মুসলিম এক হলে চারটে পাকিস্তান তৈরি হবে’, তৃণমূল নেতার মন্তব্যে বিতর্ক

209

নানুর: ভোটের আগে ধর্ম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন তৃণমূল নেতা শেথ আলম। জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ কেরিম খানকে পাশে রেখে তৃণমূলের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য শেখ আলম বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘৭০ শতাংশ নিয়ে উনারা গদিতে বসবেন ভাবছেন। আমরা যদি ৩০ শতাংশ সংখ্যালঘু মুসলিমকে একদিক করে দেই তাহলে ভারতবর্ষে চার চারটে পাকিস্তান তৈরি হবে। কোথায় যাবে ভারতবর্ষের ৭০ শতাংশ? যারা হিন্দু-মুসলিম ভেদাভেদ করে, যারা মন্দির রেখে মসজিদ ভাঙে, তাঁরা গড়বে সোনার বাংলা।’  এমনকি ২১ বছর আগে ঘটে যাওয়া নানুর গণহত্যার স্মৃতি উস্কে দিয়েও বিজেপিকে প্রচ্ছন্ন হুমকি দেন।

শেখ আলম বলেন, ‘বিজেপি যেভাবে পথ সভায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে কথা বলছে তাতে আমাদের ছেলেরা মনে করলে লাঠি সোঁটা দিয়ে তাদের ফেলে দিতে পারত। দ্বিতীয় সুচপুর তৈরি হত।’ প্রসঙ্গত, ২০০০ সালের ২৭ জুলাই সাত সকালে নানুরের সুচপুরে নারকীয় হত্যার ঘটনা ঘটে। ওই দিন সকালে একটি বাড়ি থেকে ১১ জনকে বের করে কুপিয়ে খুন করা হয়। খুনের দায়ে আজ ৪৭ জন তৃণমূল নেতা কর্মী যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করছেন।
যদিও শেখ আলম বলেন, ‘দিন দুয়েক আগে বিজেপি আমাদের পার্টি অফিসের সামনে একটি পথসভায় আমাদের সম্পর্কে কুৎসিত মন্তব্য করে। কিন্তু সেদিন আমাদের ছেলেরা ধৈর্য্য ধরে ছিল। ওরা মনে করলে ওই দিন আরেকটা সুচপুর তৈরি করে দিতে পারত।’ যদিও এই মন্তব্যের পরই অস্বস্তি ঢাকতে আসরে নেমেছেন তৃমমূল নেতারা।

- Advertisement -

কেরিম খান বলেন, ‘উনি আমাদের দলের কোনও পদে নেই। কোনওদিন বক্তব্য রাখেন না। আবেগপ্রবণ হয়ে ওসব কথা বলে ফেলেছেন। অনুব্রত মণ্ডল সরাসরি বলেন, ‘উনি আমাদের দলের কেউ নন। ওই মন্তব্য দল সমর্থন করে না।’ বিজেপির নানুর(এ) মণ্ডল সভাপতি প্রাতাপ ঘোষ বলেন, ‘শেখ আলম তো তৃণমূলের সাধারণ কর্মী। উনাদের যিনি কলকাতার মেয়র ছিলেন তিনিই তো মিনি পাকিস্তানের স্বপ্ন দেখিয়েছেন। তাছাড়া মুখ্যমন্ত্রী ‘জয় বাংলা’, ‘খেলা হবের’ মতো বাংলাদেশের স্লোগান ধার করে এখানে চালাচ্ছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গকে বৃহৎ বাংলাদেশ গড়ে প্রধানমন্ত্রী হয়ার স্বপ্ন দেখছেন। ফলে এখন নিচুস্তরের নেতা কর্মীরা নিজেদের মনের ইচ্ছে প্রকাশ করছেন। এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই।