‘বিহার, উত্তরপ্রদেশের মতো মাফিয়ারাজ চলছে বাংলায়’, মণীশ খুনে বেফাঁস দীলিপ

1097

কলকাতা: টিটাগড়ে অর্জুন সিং ঘনিষ্ঠ বিজেপির দাপুটে নেতা মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত গোটা রাজ্য। ক্ষোভে ফুঁসছে বিজেপির নেতা-কর্মীরা। এই পরিস্থিতিতে সোমবার মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় বেফাঁস মন্তব্য করে বসলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বাংলার সঙ্গে তুলনা করতে গিয়ে এমন দুই রাজ্যের নাম টেনে আনলেন দিলীপ যার মধ্যে একটি রাজ্য উত্তরপ্রদেশে বিজেপি ক্ষমতায় রয়েছে, অন্য রাজ্য বিহারে এনডিএ জোটের প্রতিনিধি হিসেবে ক্ষমতায় নীতীশ কুমার। রাজ্যকে দুষতে গিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের আইনশৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। দিন দিন এই রাজ্যটা বিহার, উত্তরপ্রদেশের মতো হয়ে যাচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গে বিহার, উত্তরপ্রদেশের মতো মাফিয়ারাজ চলছে।’ রাজ্য বিজেপি সভাপতির এই মন্তব্যে বিতর্ক তুঙ্গে। এমন সময় এই বির্তক সামনে এসেছে যখন চরম অস্বস্তিতে উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার। হাথরস ইস্যুতে উত্তাল গোটা দেশ। যোগী সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকে। নির্যাতিতাকে সুবিচার দেওয়ার দাবিতে পথে নেমেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। রাজনৈতিক সমালোচকদের মতে, দিলীপবাবুর এই মন্তব্যই বুঝিয়ে দিল যোগীর উত্তরপ্রদেশ ও নীতিশ কুমারের বিহারের পরিস্থিতি। তৃণমূলের সমালোচনা করতে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে আখেরে বিজেপিরই অস্বতি বাড়ালেন দিলীপ, এমনটাই মনে করছেন সমালোচকদের একাংশ।

রবিবার ভরসন্ধ্যায় টিটাগড়ে থানার সামনেই খুন করা হয় বিজেপির দাপুটে নেটা মণীশ শুক্লাকে। তিনি বিজেপি–র ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সদস্য। তাঁর মৃত্যুতে উত্তেজনা বেড়েছে এলাকায়। ঘটনার প্রতিবাদে এদিন ব্যারাকপুরে ১২ ঘণ্টা বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। বিজেপির ডাকা বনধে পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে আশঙ্কা করে রাস্তায় সেরকম মানুষ বের হননি। দোকানও বেশিরভাগ বন্ধ রয়েছে। বেলা বাড়লে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই তৎপর রয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

- Advertisement -