স্ত্রী-পুত্র সহ অধ্যাপকের দেহ উদ্ধারের ঘটনায় উচ্চপর্যায়ের তদন্তের দাবি

143

সিতাই: কোচবিহারে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যুর ঘটনায় সিবিআই বা সিআইডি তদন্তের দাবি উঠল। বৃহস্পতিবার কোচবিহারের গুঞ্জবাড়ি এলাকার কামেশ্বরী রোডের বাড়ি থেকে অধ্যাপক উৎপল বর্মন ও তাঁর স্ত্রী ও সন্তানের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। উৎপলবাবুর আদি বাড়ি সিতাইয়ের গোসানিমারি ১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ভিতরকামতা গ্রামে। শুক্রবার সেই গ্রামের বাসিন্দাদের একাংশ সিবিআই বা সিআইডিকে দিয়ে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।

মৃত অধ্যাপকের মা কুন্তি বর্মন জানান, তাঁর ছেলে, পুত্রবধূ এবং নাতিকে মেরে ফেলা হয়েছে। উৎপল বর্মনের ভগ্নিপতি মানিক বর্মন জানান, মৃত্যুর ঘটনায় রহস্য রয়েছে। উৎপল বর্মনের স্ত্রী অঞ্জনা বর্মন সরকারের বোন স্বপ্না সরকার জানান, তাঁর বোনের সংসারে কোনওরকম অশান্তি ছিল না। এমনকি ঋণের বিষয়ও ছিল না। তাই ঘটনার উচ্চপর্যাদের তদন্ত দাবি করেছেন সকলেই। প্রতিবেশীদের তরফে ঘটনার সিবিআই বা সিআইডি তদন্তের দাবি তোলা হয়েছে।

- Advertisement -

কোচবিহারের এবিএন শীল কলেজের অধ্যাপক ছিলেন উৎপল বর্মন। বৃহস্পতিবার ভাড়া বাড়ি থেকেই উৎপলবাবু ও তাঁর স্ত্রী এবং সন্তানের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। উৎপলবাবুর হাত হেডফোনের তার দিয়ে বাঁধা অবস্থায় ছিল। তাঁর স্ত্রী এবং সন্তানের গলায়ও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। কিভাবে মৃত্যু হল তা নিয়ে ধন্দ ছড়িয়েছে। ঘটনাটা আত্মহত্যা নাকি খুন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।