করোনা ইস্যুতে খগেন মুর্মুকে কড়া জবাব দিলেন মৌসম বেনজির নূর

493
ফাইল ছবি।

গাজোল: করোনা ইস্যুতে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মুর কড়া সমালোচনা পাল্টা জবাব দিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ মৌসম বেনজির নূর। বুধবার মৌসম বেনজির নূর বলেন, করোনার মহামারি কালে দুর্গত মানুষদের পাশে না দাঁড়িয়ে মিথ্যা তথ্য প্রচার করে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে বিজেপি। ঘোলা জলে মাছ ধরার চেষ্টা করছে। কিন্তু, বিজেপির এই অভিসন্ধি ধরে ফেলেছে সাধারণ মানুষ। আমাদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও বিজেপিকে রাজনৈতিকভাবে যোগ্য জবাব দেবেন বলে মৌসম জানান।

এদিন গাজোলে পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি আয়োজিত ত্রাণশিবিরে এসে খগেন মুর্মু এবং বিজেপির বিরুদ্ধে এভাবেই ক্ষোভ উগরে দিলেন মৌসম। মঙ্গলবার গাজোলে এসে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন উত্তর মালদার সাংসদ খগেন মুর্মু। বলতে গেলে, তিনি উত্তরবঙ্গ এবং মালদার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে তুলোধোনা করেছিলেন। তারই পাল্টা দিলেন মৌসম নূর।

- Advertisement -

মৌসব বলেন, শুধু আমাদের রাজ্য বা দেশ নয়, সারা পৃথিবীর মানুষ করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও যথেষ্ট লড়াই করছেন, নিরলস প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। কিন্তু তারপরেও এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে করোনা নিয়ে বিজেপি রাজনীতি করছে। ভুল তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

করোনা মোকাবিলায় জারি হওয়া লকডাউনে সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েছিলেন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। কোনও রাজ্যের সাঙ্গে আলোচনা না করে মাত্র চার ঘণ্টার নোটিশে সারাদেশে লকডাউন জারি করেছিলেন নরেন্দ্র মোদি। স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন রাজ্যে যে সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিক আটকে পড়েছিলেন তাঁদের নিজের রাজ্যে ফেরত পাঠানোর দায়িত্ব ছিল কেন্দ্রের। কিন্তু কেন্দ্র সেই কাজ করেনি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্রেনে করে পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফিরিয়েছেন। বাসে করে তাঁদের ঘরে ফেরৎ পাঠিয়েছেন বলে মৌসম নূর দাবি করেন।

তিনি বলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের অন্নের সংস্থান করতে স্নেহের পরশ প্রকল্পের মাধ্যমে আর্থিক সাহায্য দিয়েছে রাজ্য সরকার। নিজ নিজ এলাকায় ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জোর দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে দুর্গত মানুষদের নানাভাবে সাহায্য করা হচ্ছে। কিন্তু এগুলো বিজেপির চোখে পড়ছে না। বিজেপি শুধু ভোটের রাজনীতি করতে চাইছে। মানুষ দেখছে অসময়ে তাঁদের পাশে কে রয়েছে। তাই যোগ্য জবাব দেবেন মানুষই, দাবি মৌসমের।

উল্লেখ্য, এদিন গাজোলের ব্লক প্রাঙ্গনে দুই শতাধিক দুঃস্থ মানুষদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির গাজোল চক্রের সদস্যরা। রাজ্যসভার সংসদ মৌসুম নূর ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিধায়িকা দিপালী বিশ্বাস, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রেজিনা পারভিন, শিক্ষক সংগঠনের জেলা সভাপতি আইনুল হক, জেলা পরিষদ সদস্য প্রতিমা সিংহ প্রমুখ। সংগঠনের গাজোল চক্রের সভাপতি সাইফুর রহমান বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে বহু মানুষ কর্মহীন হয়েছেন। তাঁদের সাহায্য করতে কিছু খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।