ফালাকাটায় করোনা পরীক্ষা শুরু হচ্ছে

759

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা: ফালাকাটতেও শুরু হচ্ছে করোনা পরীক্ষা। আলিপুরদুয়ার জেলা স্বাস্থ্যদপ্তর জানিয়েছে, মঙ্গলবার থেকেই ফালাকাটায় জেলার সেম্পল পরীক্ষা শুরু হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা হবে। এজন্য ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চলে এসেছে ট্রুনাট মেশিন। বেশ কয়েকজন টেকনেশিয়ানকেও এজন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, গত মার্চ মাসে আলিপুরদুয়ার জেলায় প্রথম ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে করোনা উপসর্গ থাকা রোগীদের চিকিৎসা শুরু হয়। এজন্য এই হাসপাতালে পৃথক আইসোলেশন ওয়ার্ডও চালু করা হয়। গত ১৮ মার্চ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় রিমোটের মাধ্যমে এই হাসপাতালে ১০ বেডের সিসিইউ-র উদ্বোধন করেন। আইসোলেশন ওয়ার্ডের পাশাপাশি এখানে কোয়ারান্টিন সেন্টারও খোলা হয়। কিন্তু ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল শহরের মধ্যে অবস্থিত থাকায় পরবর্তীতে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তপসিখাতা আয়ুষ হাসপাতালকে কোভিড হাসপাতাল হিসেবে তৈরি করা হয়। এদিকে এখন প্রতিদিনই শতাধিক ব্যক্তির লালার নমুনা পরীক্ষার জন্য আলিপুরদুয়ার থেকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠাতে হচ্ছে। দূরত্বের কারণে এজন্য সময় বেশি লাগছে। এই সমস্যা সমাধানের জন্য রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তর উত্তরবঙ্গের প্রায় প্রতিটি জেলায় লালার নমুনার প্রাথমিক পরীক্ষা করতে ট্রুনাট মেশিন পাঠানোর সিদ্বান্ত নেয়। এক্ষেত্রে পরিকাঠামো ভালো থাকায় আলিপুরদুয়ার জেলার ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালকে বেছে নেওয়া হয়।

ফালাকাটায় করোনা পরীক্ষা শুরু হচ্ছে| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

গতকাল রাতেই ফালাকাটায় একটি ট্রুনাট মেশিন পৌঁছে যায়। এই নিয়ে কয়েকজন টেকনিশিয়ানকে প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যদপ্তরের দাবি, এটা জেলাবাসীর জন্য আনন্দের খবর।

এই বিষয়ে আলিপুরদুয়ারের ডেপুটি সিএমওএইচ-২ সুবর্ণ গোস্বামী বলেন, ‘এই ট্রুনাট মেশিনে একসঙ্গে অনেক নমুনার পরীক্ষা করা যায় না। তবে অল্প অল্প করে নমুনার পরীক্ষা করা যায়। এজন্য জরুরি ক্ষেত্রেই এখানে পরীক্ষা করা হবে। এখন প্রতিদিন নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ছে। জেলার যেকোনও প্রান্ত থেকে ফালাকাটায় যেতে খুব বেশ দেড় ঘন্টা সময় লাগে। এখানে দু-আড়াই ঘন্টার মধ্যে রিপোর্ট হাতে পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নমুনা পাঠালে রিপোর্ট পেতে একদিন সময় লেগে যেত। তবে কখনও প্রয়োজন হলে এখানকার পরীক্ষার পরও সেই রিপোর্ট নিশ্চিতকরণের জন্য ফের উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হবে।’ এজন্য ফালাকাটায় ৫ থেকে ৬ জন টেকনেশিয়ানকে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘এটা অবশ্যই আলিপুরদুয়ার জেলার জন্য সুখবর। আজ থেকেই এই ট্রুনাট মেশিনে নমুনা পরীক্ষা শুরু হচ্ছে।’