দেশে করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা নামল ৬ লক্ষের নীচে

602
ছবি-পিটিআই

নয়াদিল্লি: দেশে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও বিগত কয়েকদিনে সেই সংখ্যা যথেষ্ট কমেছে। একশো তিরিশ কোটির দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ লক্ষ ছাড়িয়েছে। তবে ভরসা যোগাচ্ছে সুস্থতার হার। ভারতের মতো জনবহুল দেশ, সেখানে এই সংখ্যাটা সাফল্যতো বটেই। পাশাপাশি করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা নেমেছে ৬ লক্ষের নীচে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮,২৬৮। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৫৫১ জনের। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৫৯,৪৫৪ জন।

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮১,৩৭,১১৯। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৭৪,৩২,৮২৯। মৃত্যু হয়েছে ১,২১,৬৪১ জনের। অর্থাৎ, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৫,৮২,৬৪৯।

- Advertisement -

পাশাপাশি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে সবার ওপরে রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬,৭২,৮৫৮। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৫,০৩,০৫০ জন। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৩,৮৩৭। অর্থাৎ, সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ১,২৫,৯৭১। মহারাষ্ট্রের পরই রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮,২০,৫৬৫। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৭,৮৮,৩৭৫ জন। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬,৬৭৬। অর্থাৎ, সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ২৫,৫১৪। এরপর রয়েছে কর্ণাটক। সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮,২০,৩৯৮। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৭,৪৯,৭৪০ জন। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১,১৪০। অর্থাৎ, সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৫৯,৫১৮। তামিলনাড়ুতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭,২২,০১১। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৬,৮৭,৩৮৮ জন। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১,০৯১। অর্থাৎ, সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ২৩,৫৩২।

পাশাপাশি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে দেশের অষ্টম স্থানে। এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৬৯,৬৭১। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩,২৫,৮৮৮ জন। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬,৭৮৪। অর্থাৎ, সেখানে এখনও পর্যন্ত করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৩৬,৯৯৯।