রাজ্যে শুরু হল করোনার টিকাকরণ

124

কলকাতা: দীর্ঘ অপেক্ষার পর পশ্চিমবঙ্গ সহ গোটা দেশে করোনার টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হল। শনিবার ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে টিকাকরণের সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি জানান, ইতিহাসে এত বড় টিকাকরণ কর্মসূচি এই প্রথম।

পশ্চিমবঙ্গের ২১২টি কেন্দ্রকে টিকাকরণের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। প্রথম দফায় টিকাকরণের জন্য চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীদেরই অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। আপাতত ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ড তাঁদের শরীরে প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যভবন সূত্রে খবর, তালিকা অনুযায়ী প্রথম দফায় রাজ্যের মোট ৬ লক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীকে টিকা দেওয়া হবে। এদিন কলকাতার ১৯টি হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ১০০ জনকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্য রাখা হয়েছে। কলকাতার এসএসকেএম, কলকাতা মেডিকেল কলেজ, আরজিকর মেডিকেল কলেজ, নীলরতন সরকার মেডিকেল কলেজ, ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ, চিত্তরঞ্জন সেবা সদন সহ আরও বিভিন্ন জায়গায় টিকাকরণ চলছে। এ ছাড়াও রয়েছে পাঁচটি বেসরকারি হাসপাতাল- ঢাকুরিয়া আমরি, রবীন্দ্রনাথ টেগোর, অ্যাপোলো, পিয়ারলেস এবং টাটা মেডিকেল সেন্টার।

- Advertisement -

এদিন রাজ্যের তরফে ৭ জন বিশিষ্ট চিকিৎসকের নাম করোনার টিকা নেওয়ার জন্য তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। টিকাকরণ কর্মসূচি পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে রয়েছেন স্বাস্থ্যকর্তারা। তার জন্য জাতীয় হেল্পলাইন ১০৭৫ চালু করা হয়েছে। ওই নম্বরে যোগাযোগ করলে টিকা সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য জানা যাবে। কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, টিকাকরণের প্রথম দফায় করোনা হাসপাতালে যাঁরা কাজ করছেন এমন চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা অগ্রাধিকার পাবেন। দ্বিতীয় ধাপে পুলিশ, হোমগার্ড, দমকল কর্মীদের মতো করোনা যোদ্ধারা টিকা দেওয়া হবে। প্রশাসনিক স্তরে কর্মরত বিডিও, এসডিও, পঞ্চায়েত সদস্য এবং পুরসভার কর্মীরা টিকা পাবেন তৃতীয় ধাপে। চতুর্থ দফায় টিকা পাবেন পঞ্চাশোর্ধ্ব এবং পঞ্চাশের নীচে কোমর্বিডিটি রয়েছে যাঁদের। পঞ্চম দফায় সাধারণ মানুষের টিকাকরণের পরিকল্পনা রয়েছে।