করোনা: ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুতে দিল্লি, মহারাষ্ট্রের পরেই পশ্চিমবঙ্গ

337

অনলাইন ডেস্ক: উৎসবের মরশুমের পর রাজ্যে করোনা সংক্রমণের গতি নিম্নমুখী হলেও দৈনিক গড়ে ৫০ জন মানুষ করোনার বলি হচ্ছেন। রাজ্যে অ্যাকটিভ কেস ক্রমাগত কমে চললেও মৃত্যুহার কিছুতেই না কমায় চিন্তার ভাঁজ চিকিৎসকদের কপালে। গত এক সপ্তাহে রাজ্যে করোনার বলি হয়েছেন ৩৬৬ জন। রবিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুতে সবার ওপরে রয়েছে দিল্লি। কেজরিওয়ালের রাজ্যে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১১১ জনের (আক্রান্ত ৫৮৭৯ জন)। এরপরেই রয়েছে মহারাষ্ট্র (২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৫৭৬০, মৃত্যু ৬২)। তৃতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ (২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৩৬৩৯, মৃত্যু ৫৩)।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ হাজার ৭৯৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪ লক্ষ ১৯ হাজার ৪০৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬৩৯ জন। এর ফলে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৫০ হাজার ছাড়াল। এই নিয়ে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ লক্ষ ৫২ হাজার ৭৭০। বাংলায় কোভিড-১৯ এর কারণে মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৯৭৬ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৩ জনের। রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগী ২৬ হাজার ৩৯১।

- Advertisement -

স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, রাজ্যে প্রতি মিলিয়ন জনসংখ্যায় ৬০ হাজার ৮৭০ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। রাজ্যে সরকারি, বেসরকারি মিলিয়ে ৯৫টি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। এখনও ১টি ল্যাব অনুমতি অপেক্ষায় রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৪ হাজার ২০৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত রাজ্যে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা ৫৪ লক্ষ ৭৮ হাজার ৩১১। এর মধ্যে ৮.২৬ শতাংশ ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, বাংলায় সুস্থতার হার ৯২.৬৩ শতাংশ। রাজ্যে ১০১টি হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা চলছে। এর মধ্যে ৪৪টি সরকারি ও ৫৭টি বেসরকারি হাসপাতাল।হাসপাতালগুলিতে মোট কোভিড বেড রয়েছে ১৩ হাজার ৪৯৮টি৷ আইসিইউ শয্যা রয়েছে ১ হাজার ৮০৯টি। এছাড়া ভেন্টিলেশন সুবিধা রয়েছে ১ হাজার ৯০টি শয্যায়৷