জীবাণুনাশক টানেলে আপত্তি কেন্দ্রের

404

নয়াদিল্লি: করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জনবহুল এলাকায় জীবাণুনাশক সুড়ঙ্গ নির্মাণে উলটো বিপত্তি হতে পারে বলে বেশ কয়েক মাস ধরে সতর্ক করে যাচ্ছিলেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। কেন্দ্র সেই অভিমত মেনে নিল।

সোমবার সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলায় কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, ডিসইনফেকট্যান্ট টানেল কাজের তো নয়ই, বরং মানুষের শরীর ও মনের পক্ষে ক্ষতিকর। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক ভূষণ, আর সুভাষ রেড্ডি এবং এমআর শাহের বেঞ্চ তখন মন্তব্য করে, ক্ষতিকর হলে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে না কেন? জীবাণুনাশক সুড়ঙ্গ সম্পর্কিত একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন আইনের ছাত্র গুরসিমরন সিং নারুলা। সেই আবেদনের ভিত্তিতে গত ১০ অগাস্ট কেন্দ্রকে নোটিশ দেয় শীর্ষ আদালত। নারুলা তাঁর আবেদনে বলেছিলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সহ অনেকে এই টানেল ব্যবহার ক্ষতিকর বলে জানিয়েছে। সোমবার সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, মানবদেহের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর এই টানেল। এর জেরে চর্মরোগ, শ্বাসকষ্ট, অন্য রকমের সংক্রমণ, এমনকি ক্যানসারও হতে পারে। খুব শীঘ্রই সরকার টানেল বন্ধের পদক্ষেপ করবে। তবে রাতারাতি এই টানেল নিষিদ্ধ করা নিয়ে ভিন্নমত রয়েছে পুনের ন্যাশনাল কেমিকল ল্যাব এবং মুম্বইয়ের ইনস্টিটিউট অফ কেমিক্যাল টেকনোলজির। তাদের বক্তব্য, যতটা খারাপ বলা হচ্ছে, ডিসইনফেকট্যান্ট টানেল ততটা খারাপ নয়।

- Advertisement -