২২ লক্ষ টাকা হাতিয়ে দম্পতিকে খুন, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

131

রায়গঞ্জ: চাকরি দেওয়ার নাম করে ২২ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে দম্পতিকে খুন করার অভিযোগে গ্রেপ্তার এক ব্যক্তি। শুক্রবার মূল অভিযুক্ত কৃষ্ণকমল অধিকারী ওরফে রানাকে রায়গঞ্জ জেলা আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাঁকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন পাশাপাশি শুরু হয়েছে তদন্ত। ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশি ক্যামেরাম্যান, ময়নাতদন্তের চিকিৎসকের উপস্থিতিতে মৃতদেহ দুটি ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, মৃত দম্পতি হলেন গৌতম সরকার(৩৫) ও সবিতা সরকার(৩০)। অভিযোগ, ওই দুজনকেই চাকরি দেওয়ার নাম করে ২২ লক্ষ টাকা নেয় এবং শিলিগুড়িতে ট্রেনিং করাতেও নিয়ে যায় প্রতিবেশী যুবক। এরপর অভিযুক্ত দু’দিন পর বাড়িতে ফিরলেও গৌতম ও তাঁর স্ত্রী ফেরেনি। অভিযুক্তকে বারবার জিজ্ঞাসাবাদ করেও সুরাহা না হওয়ায় অবশেষে নিখোঁজ দম্পতির পরিবার চলতি মাসের ১১ তারিখ ইটাহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। দম্পতির হদিশ করতে ১২ মে বাঙ্গার এলাকায় অভিযুক্তের বাড়িতে গ্রামের বাসিন্দারা ও দম্পতির পরিবারের লোকজন ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায়। পরবর্তীতে ইটাহার থানার পুলিশ অভিযুক্ত কৃষ্ণকমল অধিকারীকে গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিযুক্তের গাজোলের ভাড়া বাড়ি থেকে গৌতম ও তাঁর স্ত্রী সবিতার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে ইটাহার ও গাজোল থানার পুলিশ।

- Advertisement -

ইটাহারের তৃণমূল বিধায়ক মোশারফ হোসেন জানান, দম্পতি নিখোঁজের পর থেকে পুলিশের সঙ্গে ছিলাম। শেষপর্যন্ত দেহ মিলল। মৃতার মা ও দিদি জানান, এই ঘটনার সঙ্গে অনেকেই যুক্ত আছে। তাদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। গ্রামবাসীদের বক্তব্য, অভিযুক্ত এলাকায় দালাল হিসেবে পরিচিত। উত্তর দিনাজপুর জেলার পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেপ্তার করে তদন্ত শুরু হয়েছে।