করোনা যোদ্ধাদের মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন আদালতের  

197
সংগৃহীত ছবি

কলকাতা: করোনায় মৃত ও সংক্রামিত করোনা যোদ্ধাদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যাপারে রাজ্যকে আরও সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এই নির্দেশ দিয়েছে।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজ্যের কাছে জানতে চান, করোনা যোদ্ধারা সামনে থেকে পরিস্থিতির মোকাবিলা করছেন, তাঁরা সংক্রামিত হলে বা মারা গেলে তাঁদের ক্ষতিপূরণের ব্যাপারে রাজ্য কী পদক্ষেপ করেছে? তার উত্তরে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত জানান, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখালে রাজ্য সরকার ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করছে। তাঁর বক্তব্য, প্রথম সারির কোভিড যোদ্ধাদের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষতিপূরণের জন্য ১৮০টি আবেদন পত্র রাজ্যের কাছে জমা পড়েছে। করোনায় মৃতের সংখ্যা শুনে বিস্ময় প্রকাশ করে হাইকোর্ট। রাজ্যের দেওয়া হিসেব শুনে ভারপ্রাপ্ত বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল জিজ্ঞাসা করেন, এত কম সংখ্যা কেন? কোথাও সমন্বয়ের অভাব আছে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন করে আদালত।

- Advertisement -

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি জানতে চান, এখন পর্যন্ত রাজ্যে কত সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়েছে। অ্যাডভোকেট জেনারেল জানান, প্রায় ৩ কোটি ২৫ লক্ষ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। ৯ হাজার রূপান্তরকামীকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এরপরই ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘ভ্যাকসিন প্রদানের ব্যাপারে রাজ্যকে আরও সক্রিয় হতে হবে।‘

সকলকে বিনামূল্যে টিকা প্রদান ও সংক্রামিত এবং মৃত করোনা যোদ্ধাদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন সিপিএম নেতা চিকিৎসক ফুয়াদ হালিম। সেই মামলার শুনানিতে বৃহস্পতিবার রাজ্যকে এই নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি দুটি ডোজ নেওয়ার পরও কতজন সংক্রামিত, তা জানাতে বলা হয়েছে কেন্দ্রকে। এছাড়া রাজ্যকে জানাতে হবে, রাজ্যে প্রতিদিন কতজন ভ্যাকসিন পাচ্ছেন। ২৫ অগাস্ট মামলার পরবর্তী শুনানি। তার মধ্যে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর আদালতের কাছে পেশ করতে হবে রাজ্যকে।