কোভিড মোকাবিলায় কড়া বিধিনিষেধ, নজরদারি পুলিশের

107

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: করোনা মোকাবিলায় রাজ্যে সরকারের কড়া বিধিনিষেধ চলছে। আপাতত ১৫ দিনের জন্য কার্যত লকডাউন পরিস্থিতি চলছে রাজ্যে। বিধিনিষেধ সঠিকভাবে পালন করা হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে সোমবার শিলিগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, রায়গঞ্জ, দক্ষিণ দিনাজপুর সহ বিভিন্ন জায়গায় তৎপর রয়েছে প্রশাসন।

করোনাবিধি কতটা মানা হচ্ছে তা খতিয়ে দেখতে এদিন শিলিগুড়ির হাসমিচক সহ, পানিট্যাংকি মোড়, গুরুনানক চক সহ বিভিন্ন জায়গায় কড়া পুলিশি নিরাপত্তা ছিল। রাস্তায় রাস্তায় চলছে নাকা চেকিং। বাইরে বের হলে দেখাতে হচ্ছে বৈধ কারণ।

- Advertisement -

অন্যদিকে, এদিন সকাল দশটার পর থেকে বুনিয়াদপুর তিন মাথার মোড়ে পুলিশ পিকেটিং বসেছে। বুনিয়াদপুর পুর এলাকায় বংশীহারি, রশিদপুর, সরাই, নলপুকুর, ধুমসা দিঘি, নারায়নপুর এলাকায় সিভিক ভলান্টিয়ার মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি করোনা সচেতনতায় বুনিয়াদপুর সদর বাজারে ব্যবসায়ীদের হ্যান্ডবিল দেওয়া হয়।

মুখে মাস্ক না থাকলেই জরিমানা করা হচ্ছে আলিপুরদুয়ারে। এদিন পুলিশ প্রশাসনের তরফে শহরের বাজারগুলিতে অভিযান চালানো হয়। নির্দিষ্ট সময়ের পরে বাজার খোলা থাকলেই বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। রাজ্য সরকার কড়া বিধিনিষেধ এনে কার্যত লকডাউন ঘোষণা করলেও ঢিলেঢালা মনোভাব দেখা যাচ্ছে একাংশের মধ্যে। যদিও তৎপর রয়েছে প্রশাসন। আলিপুরদুয়ারের কোভিড ডিজাস্টার এনফোর্সমেন্ট সুপারভাইজার সুব্রত সরকার জানান, করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সবাইকে সতর্ক করা হচ্ছে। বাজার এলাকাগুলিতে অভিযান চলছে। প্রয়োজনে জরিমানা করা হচ্ছে।

এদিকে রায়গঞ্জেও এদিন পুলিশি তৎপরতার ছবি লক্ষ্য করা যায়। রায়গঞ্জের ডিএসপি রিপন বল এবং আইসি সুরজ থাপার নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী শহরের ফোয়ারা মোড়ে নাকা চেকিং করেন। গতকালের মতো এদিনও রাস্তায় ভিড় লক্ষ্য করা গেলেও পুলিশ পথে নামতেই শহরের চেহারা বদলাতে থাকে। যাঁরা বিনা কারণে বাড়ির বাইরে বেরিয়েছেন তাঁদের আটক করা হয়। জেলা পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, কার্যত লকডাউন সফল করতে আগামীদিনেও এই পদক্ষেপ করা হবে।