গ্রামে কোভিড হাসপাতাল, আতঙ্কিত বাসিন্দারা

262

বিশ্বজিৎ সরকার, রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ থানার অধীন কমলাবাড়ি ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের ছটপারুয়া এলাকায় থাকা কোভিড হাসপাতাল নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত গ্রামে কেউ আক্রান্ত হননি। তবে রায়গঞ্জ ব্লকের দুজন, হেমতাবাদ ব্লকের একজন ও ইটাহার ব্লকের একজনকে ওই কোভিড হাসপাতালে রাখা হয়েছে। শুধুমাত্র করোনা পজিটিভদেরই ওই বেসরকারি কোভিড হাসপাতালে রাখা হচ্ছে। এই কোভিড হাসপাতালের আশেপাশে রয়েছে ঘনবসতি এলাকা। তাই সাধারণ মানুষ কিছুটা আতঙ্কিত।

রায়গঞ্জের বিডিও রাজু লামা জানান, আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। ওই বেসরকারি হাসপাতালে খুব সতর্কতার সঙ্গে চিকিৎসা চলছে। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান জানান, রায়গঞ্জের দুটি বেসরকারি নার্সিংহোমকে রাজ্য সরকার অধিগ্রহণ করেছে। তারমধ্যে একটি মিক্কিমেঘা নার্সিংহোম। সেটি যথেষ্ট সুরক্ষিত নার্সিংহোম। যারা ভর্তি রয়েছেন তাঁরা ক্রমশ সুস্থ হয়ে উঠছেন। এই মুহূর্তে চারজন করোনা পজিটিভের চিকিৎসা চলছে সেখানে।

- Advertisement -

এদিকে, করোনা আক্রান্তরা ভর্তি হতেই ওই কোভিড হাসপাতালের ধারেকাছে যাচ্ছেন না বাসিন্দারা। কোভিড হাসপাতাল ঘোষণা হওয়ার সময় গ্রামের একটা বড়ো অংশের মানুষ আপত্তি জানিয়েছিলেন। যদিও তা ধোপে টেকেনি। তবে চারজন করোনা আক্রান্ত ওই হাসপাতালে ভরতি হতেই আতঙ্কিত স্থানীয়রা।

যদিও সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান প্রশান্ত দাস জানান, আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। এলাকায় নিয়মিত জীবাণুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। এলাকায় পুলিশ পাহারা রয়েছে। কমলাবাড়ি ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান যমুনা বর্মন জানান, প্রথমদিকে অধিকাংশ বাসিন্দা আপত্তি জানালেও পরে তাঁরা বিষয়টি মেনে নেন। গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফেও মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা চলছে। তবে চাপা একটা আতঙ্ক রয়েছেই।