টানা কুড়ি ঘণ্টা পর হাসপাতালে ভর্তির সুযোগ করোনা আক্রান্তের

233
ফাইল ছবি

কলকাতা: গত দু’দিন ধরে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন রাজ্যের পরিবহণ দপ্তরের এক প্রবীণ কর্মী। তিনি কলকাতা দক্ষিণ শহরতলির যাদবপুর থানা এলাকার বাসিন্দা। করোনা উপসর্গ থাকায় ওই ব্যক্তির লালার নমুনা পরীক্ষা করানো হয়। সোমবার তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর থেকেই রোগীর আত্মীয় পরিজনরা পুলিশ, স্বাস্থ্য দপ্তর ও বিভিন্ন হাসপাতালে ছোটাছুটি করলেও তাঁকে কোথাও ভর্তি করে উঠতে ব্যর্থ হন। তাঁদের বাড়ির কাছে কেপিসি হাসপাতলের কোভিড বিভাগে ভর্তি করার জন্য গেলে সেখান থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় যে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর না বলা পর্যন্ত তাঁরা রোগীকে ভর্তি নিতে পারবে না।

অবশেষে একটি সংবাদমাধ্যমে ওই পরিবারের করুণ কাহিনী তুলে ধরার পর টনক নড়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরে কর্তাদের। এরপর প্রথমে আক্রান্তের পরিবারকে জানানো হয় যে তাঁকে এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর তাঁকে সেখানে নিয়ে যাওয়ার জন্য স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে খুব শীঘ্রই একটি অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হচ্ছে। এরপর প্রায় টানা কুড়ি ঘণ্টা বাড়িতে পড়ে থাকার পর করোনা আক্রান্ত ওই রোগীকে স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করানো হয়।

- Advertisement -

রোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওই ব্যক্তি অসুস্থ থেকেও টানা কাজ করে গিয়েছেন পরিবহন দপ্তরে। কিছুদিনের মধ্যেই তাঁর অবসর নেওয়ার কথা ছিল। ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তির জন্য যে হয়রানির শিকার হতে হল তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।