করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি নিয়ম অমান্য করে দোকান খোলা ফালাকাটায়

100

ফালাকাটা: সরকারিভাবে নানা প্রচার সত্ত্বেও কোভিডবিধি মানছেন না ফালাকাটার ব্যবসায়ীদের একাংশ। অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার মাঠে নামলেন বিডিও সুপ্রতীক মজুমদার। বিডিও-র নেতৃত্বে ব্লক প্রশাসনের একটি দল এদিন দুপুরে ফালাকাটা শহরের বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দোকান বন্ধ করে দেন। প্রশাসনের এই অভিযানে ব্যবসায়ী মহলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। কোভিডবিধি অমান্য করে কিছু দোকান যে নির্দিষ্ট সময় ছাড়া খোলা থাকছে তা মেনে নিয়েছে ফালাকাটা হাটখোলা ব্যবসায়ী সমিতি। আগামীতে যদি এভাবে কোভিডবিধি কেউ উলঙ্ঘন করেন তাহলে আইনি পদক্ষেপ করা হবে বলে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।

সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, সকাল ৭টা থেকে ১০টা ও বিকাল ৫টা থেকে ৭টা পর্যন্ত হাট, বাজার, দোকান খোলা থাকবে। তবে মুদিদোকান, ওষুধের দোকানের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ফালাকাটা শহরাঞ্চলে নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে অন্যান্য দোকানও খোলা থাকছে বলে অভিযোগ। দুপুরেও হাটখোলায় মানুষের ভিড় হচ্ছে। শহরের নেতাজি রোডের দু’পাশে দিনভর ফুটপাথে বসা দোকান খোলা রাখা হচ্ছে। আবার অনেকেই ঠিকতো মাস্ক পরছেন না বলে অভিযোগ। সূত্রের খবর, এখন ফালাকাটা শহরে হু হু করে করোনা সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়ছে। অথচ তা সত্ত্বেও এক শ্রেণির ব্যবসায়ী ও মানুষের উদাসীনতায় প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এদিন ছিল ফালাকাটা হাটখোলার সাপ্তাহিক হাটবার। তাই সকাল থেকেই হাটের দোকানপাট খোলা থাকে। কিন্তু ১০টার পরও অনেক দোকান বন্ধ না হওয়ায় বিডিও-র কাছে অভিযোগ আসে। এরপরই দুপুর দেড়টা নাগাদ বিডিও-র নেতৃত্বে একটি টিম অভিযানে বের হয়। প্রথমে অভিযান শুরু হয় শহরের নেতাজি রোডে। প্রশাসনের কর্তারা কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে ফুটপাথের দোকানগুলি বন্ধ করে দেন। এরপর অভিযান হয় হাটখোলায়। প্রশাসনের তরফে সব দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে ব্যবসায়ী সমিতির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে ফালাকাটা হাটখোলা ব্যবসায়ী সমিতির যুগ্ম সম্পাদক রতন বর্ধন জানান, সমিতির তরফে বারবার নানাভাবে প্রচার চালানো হয়। কিন্তু তারপরও এক শ্রেণির ব্যবসায়ী নিয়ম মানছিলেন না। তাই এদিন প্রশাসনের অভিযানকে তাঁরা সাধুবাদ জানান। ফালাকাটার বিডিও সুপ্রতীক মজুমদার জানান, কিছু ব্যবসায়ী কোভিডবিধি উলঙ্ঘন করেছেন। আগামীকালও এই অভিযান চলবে। তারপরও যদি কোভিড বিধি না মানা হয় তাহলে তাঁদের বিরুদ্ধে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আইন অনুযায়ী মামলা করা হবে। ইতিমধ্যে এই আইনে ফালাকাটা ব্লকের ৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -