কলকাতা, ৩১ অক্টোবরঃ প্রয়াত বর্ষীয়ান সিপিআই নেতা গুরুদাস দাশগুপ্ত। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর। দীর্ঘদিন ধরে হার্ট ও কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন গুরুদাসবাবু। অগাস্ট মাসে চেতলার বাড়িতে হাঁটতে গিয়ে পড়ে যান তিনি। এরপর থেকে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন এই বাম নেতা।

১৯৩৬ সালের ৩ নভেম্বর বাংলাদেশের বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন গুরুদাস দাশগুপ্ত। ১৯৮৫ সালে প্রথমবার রাজ্যসভার সাংসদ হন তিনি। ২০০০ সাল পর্যন্ত পরপর তিনবার রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছিলেন তিনি। ২০০১ সালে শ্রমিক সংগঠন অল ইন্ডিয়া ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। লোকসভা এবং রাজ্যসভা মিলিয়ে তিনি পাঁচবার সাংসদ নির্বাচিত হন।। ২০০৪ সালে পাঁশকুড়া ও ২০০৯ সালে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্র থেকে তিনি জয়ী হন। ওই বছরই সংসদে সিপিআইয়ের লোকসভার নেতা হিসেবেও মনোনীত হন।

সংসদে বিরোধী রাজনীতিতে অন্যতম মুখ ছিলেন গুরুদাসবাবু। মনকি প্রথম ইউপিএ সরকারকে যখন বামেরা বাইরে থেকে সমর্থন করছে, তখনও সরকারকে রেয়াত করে চলেননি তিনি। অতীতে শেয়ার কেলেঙ্কারি থেকে শুরু করে দ্বিতীয় ইউপিএ জমানায় স্পেকট্রাম কেলেঙ্কারি– সবেতেই সরকার বিরোধিতায় গুরুদাসবাবু ছিলেন অন্যতম মুখ। সংসদের অলিন্দে কিংবদন্তি হয়ে গিয়েছিল তাঁর লাল রঙের সোয়েটার।