উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের সংযোগকারী সেতুতে ফাটল,বিপদের আশঙ্কা

564

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়,বর্ধমান: সেতুর সংযোগস্থলে ফাটলের পরিমাণ বাড়তে থাকায় বিপদের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বর্ধমান-বোলপুর জাতীয় সড়কের খড়ি নদীর উপর অবস্থিত সেতুটিতে। বর্ষা এখনও সেভাবে শুরু হয়নি। তারই মধ্যে কয়েক দিনের বৃষ্টিতেই ফাটল আরও বেড়ে চলেছে। সেতুটিতে প্রশাসনের নজরদারি না থাকলেও বিপদের আশঙ্কা করে উদ্বিগ্ন সেতু দিয়ে চলাচলকারী মানুষজন।

শুধু পূর্ব বর্ধমান জেলাই নয়, রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পথ হিসাবেই বিবেচিত হয়ে আসছে বর্ধমান বোলপুর ২ বি জাতীয় সড়ক। উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিনবঙ্গের যোগাযোগের ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয় এই সড়ক পথ। এমনই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পথে হলদী এলাকার কাছে খড়ি নদীর উপরে রয়েছে পাকা সেতু। স্থানীয় বাসিন্দা অভিজিৎ চক্রবর্তী ,প্রভাত দে প্রমুখরা বলেন, বছর দশেক আগে এক লেনের সড়ক আরও চওড়া করে জাতীয় সড়কে উন্নিত করা হয়। তারপর থেকে এই সড়ক পথ দিয়ে নিত্যদিন ওভার লোড নিয়ে বালি ও পাথর বোঝাই ট্রাক ,লরি ও ডাম্পারের যাতায়াত বেড়ে যায়। এ কারণেই খড়ি নদীর উপরে থাকা সেতুতেও চাপ বাড়ে। সেতুর ভগ্নদশা তৈরি হয়। লকডাউন চলায় প্রায় আড়াই মাস ধরে ওই সড়ক পথে এবং সেতুর উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল ছিলনা বললেই চলে। তবে আনলক ১ পর্ব চালু হতেই এই সড়কপথে যানবাহন চলাচলের চাপ পূর্বের মতোই বেড়ে গিয়েছে।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দা অভিজিৎ চক্রবর্তী বলেন, মাস কয়েক আগে সেতুর সংযোগস্থলে ফাটলটি নজরে আসে। যা কয়েকদিন আগের বৃষ্টিতে ফাটল বেড়ে চলেছে। এছাড়াও বড় বড় গর্ত তৈরি হয়েছে সেতুর উপরে। অপর বাসিন্দা সন্দীপন অধিকারী ও গঙ্গারাম মুখোপাধ্যায় বলেন, সেতুর সংযোগস্থলে ফাটল বাড়লেও হুঁশ নেই প্রশাসনের। দ্রুত ফাটল মেরামতির ব্যবস্থা করা না হলে যে কোনও দিন বড়সড় বিপদ ঘটেযেতে পারে।

পূর্ব বর্ধমান জেলাপরিষদের সহ সভাধীপতি দেবু টুডু বলেন, সেতুর বিষয়টি পূর্ত দপ্তর দেখছে। দ্রুত মেরামতির কাজে হাত দেওয়া হবে।
সেতুতে ফাটল ।