ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে জটিল অপারেশন

382
প্রতীকী ছবি।

ফালাকাটা: ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে জটিল অপারেশন হল। বৃহস্পতিবার এক গর্ভবতীর গর্ভাশয়ে থাকা টিউমারের অপারেশন করেন চিকিৎসকরা। আগে কখনও এই হাসপাতালে এরকম অপারেশন হয়নি। চিকিৎসকদের চেষ্টায় এই অপারেশন সম্ভব হওয়ায় খুশি রোগীর পরিজনদের পাশাপাশি ফালাকাটার মানুষ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ২২ ডিসেম্বর মধ্যরাতে প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভরতি হন ৩৪ বছর বয়সী এক গর্ভবতী। সেদিন ভোর রাতেই তিনি সন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু তাঁর গর্ভাশয়ে টিউমার ছিল। পরদিন রোগীর প্রচন্ড পেট ব্যথা শুরু হয় এবং পেট প্রচন্ড ফুলে ওঠে। এই পরিস্থিতিতে রক্তাল্পতার কারণে রোগীর শারীরিক অবস্থা ক্রমশ জটিল হয়ে যায়। চিকিৎসকরা রোগীকে জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেন। কিন্তু বিভিন্ন সমস্যার কারণে রোগীর পরিজনরা তাঁকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারেননি।

- Advertisement -

এরপর রোগীর পরিবারের আবেদনে সাড়া দিয়ে ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার ডাঃ চন্দন ঘোষের অনুমতিতে হাসপাতালেই অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। এদিন অপারেশনের পর জানা যায়, ওই রোগীর গর্ভাশয়ে থাকা টিউমারের ওজন পাঁচ কেজি। খুব সাবধানে টিউমারটি অক্ষত অবস্থায় পেট থেকে বের করা হয়। অপারেশন করেছেন হাসপাতালের স্ত্রী ও প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ মানস সরকার। তাঁর নেতৃত্বে তৈরি সার্জিকাল টিমে ছিলেন আরেক স্ত্রী ও প্রসূতি বিশেষজ্ঞ ডাঃ রাকা জোতদার, জেনারেল সার্জন ডাঃ কুশাগ্রা বিশ্বকর্মা এবং এনাস্থেটিস্ট ডাঃ অরুপ জাশু।

ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার ডাঃ চন্দন ঘোষ বলেন, ‘এতবড় টিউমার অপারেশন ফালাকাটা হাসপাতালের ইতিহাসে প্রথম। এটি যথেষ্ট জটিল অপারেশন। চিকিৎসক টিমকে ধন্যবাদ। রোগীর দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’