মুর্শিদাবাদ, ৬ জুলাইঃ রাজ্য সরকার লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পরে এখন সাধারণ মানুষকে আবার বোকা বানানোর জন্য নতুন এক নাটক শুরু করেছে যার নাম ‘কাটমানি’। শনিবার সকালে জেলা কংগ্রেস দপ্তরে এক সাংবাদিক বৈঠক করে এমনই অভিযোগ করলেন বহরমপুরের সাংসদ তথা কেন্দ্রে কংগ্রেসের দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। এদিন তিনি অভিযোগ করেন, ‘তৃণমূল সরকার নিজেদের স্বচ্ছতা প্রমাণের জন্য নতুন এক নাটক শুরু করে রাজ্যের সাধারণ মানুষকে বোকা বানানোর চেষ্টা করছে। লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর এখন নতুন করে রাজ্যবাসীকে কাটমানির কথায় ভোলানোর চেষ্টা করছে। নিজে সৎ এটা বোঝাতে গিয়ে মানুষকে বোকা বানাচ্ছে এই ধাপ্পাবাজ সরকার। কাটমানি ফেরতের কথা এতোদিনে তাঁর মাথায় নাড়া দিয়েছে। এতোদিন ধরে ক্ষমতায় থেকে কে কি করছেন তিনি জানতেন না। সমস্ত জায়গায় তিনি বলতেন, রাজ্যে কোথায় কি হচ্ছে না হচ্ছে সব খবর আমার কাছে আছে। তখন মনে হয়নি দিনের পর দিন আপনার প্রশাসনের লোকেরা কাটমানি নিয়ে যাচ্ছে। কাটমানি ফেরতের নামে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সকলের মধ্যে দাঙ্গা লাগিয়ে দিচ্ছেন। একদিকে যেমন বিজেপি সাম্প্রদায়িকতার রং নিয়ে খেলায় মেতেছে গোটা দেশজুড়ে, অন্যদিকে রাজ্যে তৃণমূল সরকারও একই খেলাতে নিজেদের মাতোয়ারা করেছে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এতোদিন সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কথা শোনা যেত। কিন্তু মুর্শিদাবাদে কোনোদিন এই ধরণের ঘটনা আগে ঘটেনি। কিন্তু এই সরকারের এই সমস্ত সিদ্ধান্তের কারণে মুর্শিদাবাদ জেলাও প্রায় অশান্তির দিকে ঝুকে পড়েছে। কান্দিতে এদিন একটি ছোটো গণ্ডগোলকে দলীয়ভাবে প্রভাবিত করে সাম্প্রদায়িক রংয়ের খেলা খেলাতে চাইছে এই সরকার। প্রশাসনিক দিক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের সুরক্ষার বিষয়ে ব্যর্থ এই সরকার। আমরা তাই বলতে চাই সমস্ত রাজনৈতিক দল এবং প্রশাসনের অবিলম্বে উদ্যোগ গ্রহণ করে রাজ্যে শান্তি ফিরিয়ে নিয়ে আসা উচিত্।