ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’, মোতায়েন এনডিআরএফের ৩০টি দল

613

নয়াদিল্লি: ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’। দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া গভীর নিম্নচাপটি মঙ্গলবার পশ্চিম-উত্তর মুখে অগ্রসর হচ্ছে। সেটি পুদুচেরি থেকে ৪১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে এবং চেন্নাই থেকে ৪৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থান করছে বলে জানাচ্ছে মৌসম ভবন।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে নিম্নচাপটি। দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের উপর হাওয়ার গতিবেগ ঘণ্টায় ৫৫-৬৫ কিলোমিটার। এটি যত এগিয়ে আসবে তত আরও শক্তিশালী হবে বলে জানাচ্ছে মৌসম ভবন। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার সকালে এর গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৫ কিলোমিটারে পৌঁছোবে। সেটি আরও শক্তি সঞ্চয় করে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিয়ে বুধবার বিকেলের দিকে মামাল্লাপুরম এবং কারাইকলের মাঝে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সময় ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’ গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১১০-১১০ কিলোমিটার। সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটারও হতে পারে।

- Advertisement -

ইতিমধ্যেই চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে তামিলনাড়ু এবং পুদুচেরিতে। পরিস্থিতির মোকাবিলা এবং উদ্ধারকাজের জন্য জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৩০টি দলকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তার মধ্যে ১২টি দল তামিলনাড়ু এবং পুদুচেরিতে আগে থেকেই মোতায়েন করা হয়েছে বলে এনডিআরএফ সূত্রে খবর। কোনও রকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে তামিলনাড়ুতে এদিন থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে আন্তঃজেলা বাস পরিষেবা। বেশ কিছু ট্রেনও বাতিল করা হয়েছে। খুব প্রয়োজন ছাড়া জনসাধারণকে ঘরের বাইরে বের হতে নিষেধ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। অন্ধ্রপ্রদেশেও প্রশাসনের তরফে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। মৌসম ভবন জানাচ্ছে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রায়লসীমা এবং উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। নেল্লোর, চিত্তুর জেলায় হাওয়ার গতিবেগ সর্বোচ্চ হতে পারে ঘণ্টায় ৭৫ কিলোমিটার। সঙ্গে চলবে বৃষ্টিও।