বেহাল কালভার্টের জেরে বিপদের আশঙ্কা, দুশ্চিন্তায় স্থানীয়রা

331

হেলাপাকড়ি: হেলাপাকড়ি-চ্যাংরাবান্ধাগামী মূল পাকা রাস্তায় শ্মশানঘাট সংলগ্ন এলাকার কালভার্টটির বেহাল অবস্থা। কালভার্টের গার্ডওয়াল ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে পড়েছে।

ওই রাস্তা দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করে। ফলে মুহূর্তে কালভার্ট ভেঙে বড়সড় বিপদের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। স্থানীয় বাসিন্দা পাঞ্চালি রায়ডাকুয়া বলেন, ‘গার্ডওয়াল ভেঙে রাস্তার মাটি ধসে গর্ত তৈরি হয়েছে। কালভার্ট থেকে রাস্তাটি অনেকটাই নীচু হয়ে গিয়েছে। জেলা পরিষদ নিয়ন্ত্রণাধীন এই রাস্তা দিয়ে দিনরাত ছোটবড় বহু যানবাহন চলাচল করে। চালকরা তা বুঝে উঠতে না পারায় একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটছে। ইতিমধ্যে গাড়ি ও বাইক দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন গুরুতর জখম হয়েছেন। কাজেই দ্রুত মেরামত না করা হলে বড়সড় বিপদ ঘটে যেতে পারে।’

- Advertisement -

অপর বাসিন্দা শ্যামল রায় জানান, কয়েকদিন আগেই এক যুবক এই রাস্তায় বাইক নিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘনার কবলে পড়ে গুরুতর জখম হয়েছেন। আর এক বাসিন্দা বিরাজ রায়ডাকুয়া বলেন, ‘কালভার্ট মেরামতের দাবি জানিয়ে গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে এলাকাবাসীর তরফে লিখিত আবেদন জানানো হয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে গার্ডওয়ালের জায়গায় বাঁশের রেলিং ও মাটি দিয়ে রাস্তার গর্ত বুজে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কালভার্টের কোনওরকম মেরামত করা হয়নি। বর্তমানে জোড়া খসে কালভার্টের ওপরের অংশ আলাদা হয়ে রয়েছে। ফলে বড় গাড়ির ঝাকুনিতে যে কোনও মুহূর্তে সেটি সরে গিয়ে নীচে পরে যেতে পারে। এতে বড়সড় বিপদ হতে পারে।’ তাই দ্রুত কালভার্ট মেরামতের দাবি জানাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

পদমতি-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান লিপিকা রায় জানান, ওই রাস্তাটি জেলা পরিষদের অধীনে রয়েছে। স্থানীয়দের আবেদনের ভিত্তিতে গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে বাঁশের রেলিং ও মাটি দিয়ে রাস্তার ভাঙা অংশ আপাতত মেরামত করে দেওয়া হয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে বিষয়টি জেলা পরিষদকে জানানো হয়েছে।