রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরাসরি অপপ্রচার, সাসপেন্ড জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সহ সভাপতি

511

ফাঁসিদেওয়া, ৯ মার্চঃ দোলের দিন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ব্যানারে মিছিলে যোগদান করে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করায় দার্জিলিং জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সহ সভাপতি প্রণবেশ মন্ডল (আপলু) কে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হল। সোমবার দোল পূর্ণিমার দিন ফাঁসিদেওয়া ব্লকের বিধাননগরে দোল মহামিলন ও হনুমান জয়ন্তী উৎসবের আয়েজন করা হয়েছিল। প্রতি বছর বিধাননগর ভাগবত প্রচারক মণ্ডলীর তরফে বিশাল পথযাত্রা বের করা হয়। এবারেও প্রচুর মানুষ এই দোল উৎসবে মেতে উঠেছিলেন। রাজ্য পুলিশের অনুমতি নিয়েই সেই উৎসব চলছিল। তবে এদিন দুপুরে কোনো অনুমতি ছাড়াই দার্জিলিং জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সহ সভাপতি তথা ফাঁসিদেওয়া পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সভাপতি প্রণবেশ মন্ডল বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ব্যানার নিয়ে ওই মিছিলে হাজির হন বলে অভিযোগ। অন্যদিকে, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক পরিস্থিতি তৈরির জন্য বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্যদের মিছিলে সামিল করেন। বিধাননগরের একটি স্কুলের মাঠে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ব্যানারে সভায় প্রণবেশ মন্ডল বক্তব্য রাখেন। ওই বক্তব্যের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখান থেকেই দার্জিলিং জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সহ সভাপতি প্রণবেশ মন্ডল রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার সাধারণ মানুষের সঙ্গে দ্বিচারিতা করে চলেছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি আরও জানান, সরকার ফাঁসিদেওয়া ব্লকের মানুষের জন্য একটি শ্মশান ঘাট তৈরি করতে পারেনি। সরকারের দ্বিচারিতার বিরুদ্ধে গিয়ে রাজ্য সরকারকে তিনি বাতিল করার দাবি তুলেছেন। প্রণবেশ বাবুর এই মন্তব্য শেষ হতেই, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সমর্থকরা ওই মঞ্চে জয় শ্রীরাম ধ্বনি উচ্চারণ করতে থাকেন। ভিডিও ভাইরাল হতেই এদিন রাতেই প্রণবেশ মন্ডলকে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রঞ্জন সরকার জানিয়েছেন। অন্যদিকে, তৃণমূল যুব কংগ্রেসের জেলা সভাপতি বিকাশ রঞ্জন সরকার জানিয়েছেন, প্রণবেশ বাবুর বিরুদ্ধে দল বিরুদ্ধ আচরণের অভিযোগে তাঁকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পাশাপাশি আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এদিকে, অনুমতি ছাড়াই বিশ্ব হিন্দু পরিষদ বিশাল পুলিশ বাহিনীর সামনে সমস্ত কার্যকলাপ করলেও, পুলিশ কেন পদক্ষেপ গ্রহণ করল না, তা নিয়েও বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠছে। বিধাননগরের ঐতিহ্যবাহী দোল উৎসবে এভাবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সরাসরি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জন্য প্রনবেশ মন্ডলকে তোপ দেগে তৃণমূল কংগ্রেসের ফাঁসিদেওয়া বিধানসভা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান কাজল ঘোষ জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন থেকেই প্রণবেশ বাবু দলবিরোধী কাজ করে আসছেন। এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। অপরদিকে প্রনাবেশ মন্ডল সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি দলের বিরুদ্ধে কোনো মন্তব্য করেননি। বিষয়টি নিয়ে জেলা রাজনৈতিক মহলে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। রাজ্য পুলিশের অনুমতি না নিয়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ব্যানারে বিধাননগরে রাজ্য সরকারের অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে জেলা পুলিশের ডিএসপি (গ্রামীণ) অচিন্ত্য গুপ্ত জানিয়েছেন বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।