মালে মারামারি ওয়ার্নার-স্লেটারের, অস্বীকার দুজনের

নয়াদিল্লি : আতঙ্কের ভারত ছেড়ে মালদ্বীপে নিভৃতবাসে রয়েছেন। যদিও সেখানেও বিপত্তি। হাতাহাতিতে জড়ালেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মাইকেল স্লেটার। ওয়ার্নার সানরাইজার্স হায়দরাবাদে হয়ে এবার খেলেছেন। স্লেটার সেখানে কমেন্ট্রেটরের ভূমিকায়। বয়সের ফারাক থাকলেও, দুজনে ভালো বন্ধু বলেই পরিচিত।

দুই বন্ধুর মধ্যে এহেন ঘটনা স্বভাবতই অবাক করেছে অনেককে। অজি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ওয়ার্নার ও স্লেটার তাজ কোরাল রিসর্টের পানশালায় গিয়ে ঝামেলায় জড়ান। প্রথমে বাদানুবাদ। গণ্ডগোল শেষপর্যন্ত গড়ায় হাতাহাতিতে। বারের কর্মী ও বাকিরা এসে ওয়ার্নারদের বিরত করেন।

- Advertisement -

ওয়ার্নার, স্লেটাররা যদিও ঘটনার কথা অস্বীকার করেছেন। দাবি, তাদের মধ্যে কোনওরকম ঝামেলা হয়নি। পুরোটাই গুজব। প্রাক্তন অজি ক্রিকেটার ও বর্তমানে ধারাভাষ্যকার মাইকেল স্লেটার দাবি করেছেন, গুজনে কান দেবেন না। ওয়ার্নার ও আমি পরস্পরের খুব ভালো বন্ধু। আমাদের মধ্যে মারামারির কোনও সুযোগ বা সম্ভাবনা নেই।

স্লেটারের সুরে ওয়ার্নারও জানিয়ে দেন, হাতাহাতির কোনও ঘটনাই ঘটেনি। বলেন, বুঝতে পারছি না, আপনারা (সাংবাদিকরা) এসব খবর কোথা থেকে পেয়েছেন। ঘটনার জায়গায় যদি আপনারা না থাকেন, সঠিক কোনও প্রমাণ যদি আপনাদের হাতে না থাকে, তাহলে এসব লেখা কখনই উচিত নয়।

ভারতের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ অস্ট্রেলিয়ার। ১৫ মে পর্যন্ত ভারত থেকে আসা প্রত্যেকের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে স্কট মরিসন প্রশাসন। ফলে আইপিএলে অংশগ্রহণকারী ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ, ম্যাচ অফিশিয়াল, ধারাভাষ্যকার মিলিয়ে ৩৮ জন অস্ট্রেলীয়র বর্তমান ঠিকানা এখন মালদ্বীপ। নিষেধাজ্ঞা উঠলে এখান থেকেই দেশে ফিরবেন তাঁরা। তারমাঝেই ওয়ার্নার-স্লেটারের মারামারির চাঞ্চল্যকর ঘটনা।