উত্তরবঙ্গের জন্য একাধিক চমক নিয়ে পৃথকভাবে ইস্তাহার প্রকাশ দেবশ্রী চৌধুরীর

128

রায়গঞ্জ: উত্তরবঙ্গের জন্য একাধিক চমক নিয়ে পৃথক নির্বাচনি ইস্তাহার প্রকাশ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চোধুরী। নির্বাচনি ইস্তাহারে উল্লেখ রয়েছে, রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে লক্ষ্য হবে প্রত্যন্ত এলাকায় সরকারি পরিষেবা পৌঁছোনোর কথা। পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের মানুষকে উন্নয়নের আওতায় নিয়ে আসা, উত্তরবঙ্গে এইমস, মালদা গঙ্গা নদী ভাঙন প্রতিরোধে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা। পাশাপাশি উত্তর দিনাজপুরের চোপড়াকে বাংলাদেশের তেঁতুলিয়া উপজেলার মধ্য দিয়ে জলপাইগুড়ি ও ময়নাগুড়ি শহরগুলিকে সংযুক্ত করার কথাও বলা হয়েছে। এতে ৮৪ কিলোমিটার পথ কমে যাবে এবং উত্তর-পূর্ব ভারতে যাতায়াতের আরও সহজ হবে। পাশাপাশি উল্লেখ রয়েছে রাজবংশি ট্যুরিজম সার্কিট তৈরির কথা। কুড়মালি, সাঁওতালি, রাজবংশি এবং নেপালি ভাষায় প্রচারের জন্য নির্দিষ্ট এলাকায় স্কুলগুলিকে উৎসাহিত করা। পাশাপাশি বলা হয়েছে, উত্তরবঙ্গে ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করে জৈব উদ্যানজাত পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়াকরণের ও বিপণনের জন্য একটি কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। একটি নির্ধারিত করিডোর তৈরি করা হবে যার মাধ্যমে ডানকুনিকে শিলিগুড়ির সঙ্গে যুক্ত করা হবে।

শিলিগুড়িতে মেট্রো চালু করার কথা বলা হয়্ছছে। ৬৭৫ কিলোমিটার লম্বা নেতাজি এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ যেটি কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি সঙ্গে সংযুক্ত করবে। ১১ ভারতীয় গোর্খা উপজাতিদের তপশিলি উপজাতি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে। বন অধিকার আইন কঠোরভাবে কার্যকর এবং নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে সেগুলি পর্যালোচনা করা হবে। চা বাগান শ্রমিকদের ৬০ বছর বয়স হওয়ার পর প্রতি মাসে তিন হাজার টাকা মাসিক পেনশন দেওয়া হবে। উত্তরবঙ্গের সমস্ত চা বাগানের শ্রমিকরা কেন্দ্রীয় সরকারের সুরক্ষা প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। চা বাগানের শ্রমিকদের প্রতি দিনের মজুরি বেড়ে ৩৫০ টাকা করা হবে। দার্জিলিংয়ে গোর্খা স্বাধীনতা সংগ্রামে উজ্জ্বল যোদ্ধাদের জন্য মিউজিয়াম প্রতিষ্ঠা করা হবে। ভারতের সহযোগিতায় নেপালি ভাষায় টিভি এবং রেডিও চ্যানেল গঠন করা হবে। নেপালি ভাষা প্রচার গবেষণা এবং সংরক্ষণের জন্য বাংলা ভাষাতত্ত্ব ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হবে। নেপালি এবং অন্যান্য স্থানীয় ভাষার চলচ্চিত্র প্রচারের জন্য পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত নগদ পুরস্কার প্রদান, স্থানীয় যুবকদের কর্মসংস্থানের সুযোগ দেওয়ার জন্য শিলিগুড়িতে আইটি পার্ক স্থাপন করা হবে। উত্তরবঙ্গের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন বোর্ড তৈরি করা হবে। এই সমস্ত প্রতিশ্রুতির কথাই উল্লেখ রয়েছে উত্তরবঙ্গের নির্বাচনি ইস্তাহারে।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার এই ইস্তাহার প্রকাশ করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, শিলিগুড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন করে উত্তরবঙ্গের ইস্তাহারে প্রকাশ করার কথা ছিল। সময়ের অভাবে রায়গঞ্জ থেকেই প্রকাশ করা হল। এদিন উত্তরবঙ্গের বঞ্চনার কথা বলে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করতে শোনা যায় দেবশ্রী চৌধুরীকে। বিশেষ করে রায়গঞ্জ থেকে এইমস সরিয়ে অন্যত্র করায় রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন রায়গঞ্জের সাংসদ। ইস্তাহারের একটি বিশেষ অংশে গুরুত্ব পেয়েছে উত্তরবঙ্গের সার্বিক উন্নয়ন ও পাহাড় তরাই ডুয়ার্স নিয়ে নানা ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর অভিযোগ, রায়গঞ্জে এইমস হওয়ার কথা ছিল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য হয়নি। ফলে সেই প্রকল্পকে রায়গঞ্জে ফিরিয়ে আনতে গেলে আইনি জটিলতা রয়েছে। যদিও রায়গঞ্জের সাংসদ হিসেবে রায়গঞ্জে এইমস করার আবেদন জানাবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। এদিন ইস্তাহারে সমগ্র অংশজুড়েই লেখা ছিল উন্নয়নের কথা। ইস্তাহারে তৈরির ক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গের শীর্ষ নেতাদের মতামতই নয় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে সমাজের বিশিষ্টদের মতামতকেও। সমাজের নানা সম্প্রদায়ের মানুষের কথা ভেবে একাধিক প্রকল্পের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। তাঁদের উপকারিতা সমাজের নানা অংশ কতটা পৌঁছাতে পারে কিভাবে পিছিয়ে পড়া সেইসব মানুষের জন্য কাজ করা যায়, বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তির কাছ থেকে সেই পরামর্শ নেওয়া হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে।