কলকাতা লিগের মান নিয়ে প্রশ্ন হাবাসের

কলকাতা : এএফসি কাপ খেলার জন্য কলকাতা লিগ এবং ডুরান্ড কাপে অংশ নিচ্ছে না এটিকে মোহনবাগান ও এসসি ইস্টবেঙ্গল। বাগান কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাস তো আবার এক ধাপ এগিয়ে এরকম অপেশাদার লিগে তাদের মতো পেশাদার দলের অংশগ্রহন নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন। প্রায় একই সুর এসসি কর্তাদেরও।

আগামী ২২ সেপ্টেম্বর উজবেকিস্তানের নাসাফ এফসির বিরুদ্ধে জোনাল সেমিফাইনাল খেলবে মোহনবাগান। তার জন্য ১০ তারিখ থেকে ফের শিবির শুরু করবেন হাবাস। মাঝের সময়টা তিনি গোটা দলকে ছুটি দিয়ে দেন। ফুটবলাররা ছুটি কাটালেও কলকাতা লিগ ও ডুরান্ডে এবার অনুপস্থিত হাবাসের দল। অথচ আইএসএলের দল এফসি গোয়া, জামশেদপুর এফসি, বেঙ্গালুরু এফসি, হায়দারাবাদ এফসি ও কেরালা ব্লাস্টার্স কলকাতায় ডুরান্ড কাপ খেলছে।

- Advertisement -

কেন মোহনবাগান খেললো না কলকাতা লিগে, এই প্রশ্নের উত্তরে হাবাস বলছেন, আমাদের হাতে পর্যাপ্ত পরিমান ফুটবলারই নেই। তিন গোলরক্ষকসহ ২১ জন ফুটবলার নিয়ে মালদ্বীপ গিয়েছিলাম। এরপরেই আক্রমনাত্মক তিনি, এদেশে পেশাদার ফুটবলের মান উন্নয়ন করতে হলে এরকম অ্যামেচার দলগুলির বিরুদ্ধে খেললে হবে না। সারা পৃথিবীতে এরকম কোথাও হয় না। আমি ৬ বছর হল এদেশে কাজ করছি। কখনও কোনও স্থানীয় টুর্নামেন্ট খেলিনি। তাছাড়া আমরা কি এএফসি কাপ না খেলে এসব খেলব?

যা শুনে ক্ষীপ্ত আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় আবার বলছেন, রিজার্ভ দল না থাকলে এরা লাইসেন্সিংয়ে পাস করে কিভাবে? তবে এই না খেলার জন্য যা পদক্ষেপ করার ঠিক সময়ে নেওয়া হবে। তবে প্রায় একইরকম বক্তব্য এসসি ইস্টবেঙ্গল কর্তাদেরও। তাঁরাও বলছেন, একটা পেশাদার দলকে জোর করে কোনো অপেশাদার লিগে খেলানো যায় না।