বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি অযৌক্তিক নয় : অমিত শা

664

নয়াদিল্লি : পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার জন্য বিজেপি নেতাদের দাবির যৌক্তিকতা রয়েছে বলে মনে করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। শনিবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অমিত শা বলেন, ‘রাজনৈতিক নেতা হিসাবে ওঁদের (বিজেপি নেতা) দাবি অযৌক্তিক নয়। বাংলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ।’ তবে বাংলায় এখনই রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হবে কি না, সেই প্রশ্নে কিছুটা সতর্কভাবে অমিত বলেন, ‘আমি তা এখনই বলছি না। আমি বলতে চাইছি রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবিতে ভুল নেই।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোনও রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার ক্ষেত্রে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্যপালের রিপোর্ট পাওয়ার পর সাংবিধানিক রীতি মনে তবেই রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়।’ অমিত শার এই মন্তব্যের পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছে। ২০২১ সালের রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগে কেন্দ্র রাষ্ট্রপতি শাসনের পথে হাঁটবে কি না, তা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। পরের বছর বাংলায় পরিবর্তন আসছে বলেও এদিন দাবি করেন অমিত শা। আগামী বছরের নির্বাচন প্রসঙ্গে শা বলেন, ‘আমরা আমাদের সবটুকু দিয়ে লড়ব। আমি নিশ্চিত নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাংলায় পরের বছর পরিবর্তন আসছেই।’ তবে রাজ্যে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী কে হবেন, সেই প্রসঙ্গে সরাসরি কিছু বলতে চাননি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী যে কেউ হতে পারেন, তবে মানুষ এখন রাজ্য থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে হঠাতে চাইছে। সেটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে ১৮টি আসন দখল করার পর থেকেই বিধানসভায় ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন দেখছে বিজেপি। কোনও  জেলায় রাজনৈতিক সংঘর্ষ, বিজেপি নেতা-কর্মীর খুনের কোনও ঘটনা ঘটলেই রাজ্যের বিজেপি নেতারা রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানান। সম্প্রতি ব্যারাকপুরে বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার খুনের পর ফের একবার রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানাতে শুরু করেছেন বিজেপি সাংসদ-নেতারা। কৈলাস বিজয়বর্গীয়, বাবুল সুপ্রিয় এই নিয়ে সরব হয়েছেন। এর আগে হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়কের অস্বাভাবিক মৃত্যু, নীচুতলার বিজেপি কর্মীদের খুনের সময়ও রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, লকেট চট্টোপাধ্যায়রা। অমিত শার এই মন্তব্যের রাজ্যের বিজেপি নেতারা অক্সিজেন পাবেন।

- Advertisement -

এদিনের সাক্ষাৎকারে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, রাজনৈতিক খুনোখুনি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে অমিত শা বলেন, ‘বাংলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে। দুর্নীতি চরম সীমায় পৌঁছে গিয়েছে। প্রত্যেক জেলায় বোমা তৈরির কারখানা তৈরি হয়েছে। কোনও রাজ্যে এই পরিস্থিতি নেই।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আগে কেরলে এই ধরনের পরিস্থিতি ছিল কিন্তু এখন তা অনেক নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে।’ ঘূর্ণিঝড় আমপানের পর ত্রাণবিলিতেও দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন অমিত শা। তিনি বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় আমপানের ত্রাণবিলি সম্পূর্ণ ভুল হাতে পড়েছে। ত্রাণবিলিতে ভুরিভুরি অভিযোগ জমা পড়েছে আমাদের কাছে।’ রাজ্য সরকার যেভাবে করোনা মোকাবিলা করছে তারও সমালোচনা করেন তিনি। অমিত শা বলেন, মহামারি মোকাবিলায় ঠিকমতো ব্যবস্থা নেয়নি রাজ্য সরকার।