হরিণের শিং সহ চার লক্ষ টাকার কাঠ উদ্ধার

789

বিন্নাগুড়ি: বনদপ্তরের তরফে অভিযান চালিয়ে হরিণের শিং সহ চার লক্ষ টাকার কাঠ উদ্ধার হল। সোমবার মোরাঘাট রেঞ্জার রাজকুমার পালের নেতৃত্বে বনকর্মীরা বানারহাট রেঞ্জ, দলগা রেঞ্জ ও বানারহাট পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে হলদিবাড়ি চা বাগানের বিভিন্ন শ্রমিক লাইনে দীর্ঘক্ষণ যৌথ অভিযান চালায়।

হলদিবাড়ি চা বাগানের মনিপুর লাইন, বরা লাইন, মিশন লাইনে অভিযান চালিয়ে একটি হরিণের শিং সহ ২৫০ সিএফটি চোরাই শাল কাঠ, সেগুন কাঠ ছাড়াও জঙ্গল থেকে কাঠ চুরির কাজে ব্যবহৃত বেশ কয়েকটি জিনিস উদ্ধার করেন বনকর্মীরা। যদিও অভিযানের কথা জানতে পেরে কাঠ চোরেরা পালিয়ে যায়।

- Advertisement -

বনদপ্তর সূত্রে জানানো হয়, হলদিবাড়ি চা বাগান মোরাঘাট জঙ্গল ঘেষা থাকায় সহজেই কাঠ চোরেরা রাতের অন্ধকারে মূল্যবান গাছ কেটে চা বাগানে স্থিত বিভিন্ন গোপন ডেরায় চেড়াই করে। এরপর এই বাগান থেকে এই কাঠ রাজ্য সড়ক হয়ে বিভিন্ন এলাকায় পৌঁছে দেওয়া হয়। এই ব্যবসায় অনেক বড় মাথা যুক্ত রয়েছে বলে মনে করছে বনদপ্তর। যেহেতু বাগানটি জঙ্গল ঘেষা তাই এখানে কাঠ চোরেদের কাজে লাগিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে কিছু বহিরাগত ব্যবসায়ী।

মোরাঘাটের রেঞ্জার রাজকুমার পাল জানান, হলদিবাড়ি চা বাগানের তিনটি লাইনে বানারহাট থানার পুলিকে সঙ্গে নিয়ে এদিন অভিযান চালিয়ে প্রায় ২৫০ সিএফটি চোরাই শাল, সেগুন কাঠ ও ব্যবহৃত জিনিস উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও একটি বাড়ি থেকে তীর-ধনুক সহ একটি হরিণের শিং পাওয়া গিয়েছে। যে বাড়ির থেকে পাওয়া গিয়েছে সেই বাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে বন্য আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। প্রত্যেকেই খবর পেয়ে পালিয়ে যায়। মোরাঘাট রেঞ্জের তরফে এর আগেও বহুবার অভিযান চালানো হয়। আগামী দিনেও এই অভিযান চলতে থাকবে বলে জানানো হয়েছে।