গালওয়ানে লড়াই করা বিহার রেজিমেন্টের জওয়ানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের টুইট করা ভিডিও থেকে নেওয়া

অনলাইন ডেস্ক: গালওয়ান সীমান্তে চিনা সেনার সঙ্গে লড়াই করা ১৬ বিহার রেজিমেন্টের জওয়ানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। শুধু তাই নয়, জওয়ানদের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। পাশাপাশি তাঁদের কাঁধে হাত রেখে ও পিঠ চাপড়ে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

প্রসঙ্গত, চিন সীমান্তে সামরিক প্রস্তুতি দেখতে শুক্রবার লাদাখে যান প্রতিরক্ষামন্ত্রী। সেদিন স্ট্যাকনা ফরোয়ার্ড পোস্টে ও প্যাংগং সো লেকের কাছে লুকুং ফরোয়ার্ড পোস্টে যান তিনি। পাশাপাশি জওয়ানদের উদ্দেশে বক্তব্যও রাখেন। রবিবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী কার্যালয় থেকে সেই সংক্রান্ত একটি ভিডিও টুইটারে পোস্ট করা হয়। টুইটে লেখা হয়, লাদাখের লুকুংয়ের ফরোয়ার্ড পোস্টে সফর চলাকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বিহার রেজিমেন্টের জওয়ানদের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁদের সঙ্গে কথাও বলেন মন্ত্রী।

- Advertisement -

তবে টুইটে ১৬ বিহার রেজিমেন্টের কথা আলাদা করে না বলে হলেও ভিডিওয় দেখা যায়, এক সেনা আধিকারিক জওয়ানদের সঙ্গে মন্ত্রীর পরিচয় করোনার সময় বলছেন,গালওয়ানে যে জওয়ানরা লড়াই করেছিলেন, তাঁদের মধ্যে এই জওয়ানও রয়েছেন। এরপরই দেখা যায়, রাজনাথ সিং ওই জওয়ানের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলেন। তাঁকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি পিঠও চাপড়ে দেন।

উল্লেখ্য, দু’দিনের লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীর সফরে গিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। শুক্রবার লাদাখে যান তিনি। শনিবার তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলওসি)-র কাছে একটি সেনা চৌকি পরিদর্শন করেন। সেখানে মোতায়েন সেনাদের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্র খতিয়ে দেখেন। এছাড়া ওইদিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত, সেনাপ্রধান এমএম নারাভানে অমরনাথ মন্দিরে পুজো দেন।

জুন মাসে পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনের সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হন। তারপর থেকেই প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় উত্তেজনা চলছে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী লাদাখে গিয়ে চিনের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন। তার পরপরই লাদাখ সফরে গিয়ে ফের চিনের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। শুক্রবার সফরের প্রথম দিনে লাদাখের লেহ্ পৌঁছোন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, ‘ভারতের এক ইঞ্চি জমিও কেউ কেড়ে নিতে পারবে না।’ এভাবেই প্রতিরক্ষামন্ত্রী চিনকে কড়া বার্তা দেন।