দিল্লির কৃষক আন্দোলনে হিংসার ঘটনায় আটক ২০০

120

নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনে হিংসার ঘটনায় ২০০ জনকে আটক করল দিল্লি পুলিশ। তাঁদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে বলে দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে।

- Advertisement -

প্রজাতন্ত্র দিবসে কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় দিল্লি। পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জখম হয়েছেন তিন শতাধিক পুলিশকর্মী। পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। ব্যারিকেড ভাঙার পাশাপাশি সরকারি বাস এবং গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন আন্দোলনকারীরা। ট্র্যাক্টরে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় এক কৃষকের। লালকেল্লার ব্যারিকেড ভেঙে ভিতরে ঢুকে পড়েন আন্দোলনকারী কৃষকদের একাংশ। লালকেল্লার গম্বুজে উঠে ধর্মীয় পতাকা তুলে দেওয়া হয়।

দিল্লির অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। পরিস্থিতি সামলাতে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।পরিস্থিতি খতিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছেন কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল। দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসছেন আধিকারিকরা। ট্র্যাক্টর মিছিল ঘিরে হিংসার ঘটনায় ইতিমধ্যেই ২২টি মামলা দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ। হিংসার জেরে এখনও দিল্লির বেশ কিছু জায়গায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। সিংঘু এবং টিকরি সীমান্তে মোতায়েন রয়েছে ৩০ কোম্পানি সিআরপিএফ।

এদিকে, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ফরেন্সিক টিম ও বম্ব স্কোয়াড। লালকেল্লার চারপাশে আইটিও ও অন্যান্য জায়গার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিতকরার কাজ চলছে। ইতিমধ্যেই ২০০ জনকে আটক করেছে দিল্লি পুলিশ। তাদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে বলে দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে।