পানীয় জলের পরিষেবার দাবি, ভোট বয়কটের হুঁশিয়ারি স্থানীয়দের

62

মেখলিগঞ্জ: চেয়েও মিলছে না পানীয় জল পরিষেবা। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকদের বাড়িতে পিএইচই-র পানীয় জল পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। পানীয় জলের পরিষেবার দাবিতে সোমবার মেখলিগঞ্জ ব্লকের ভোটবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্দরান নিজতরফ এলাকায় পিএইচই-র স্থানীয় দপ্তরে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিক্ষোভে অংশ নেন মহিলারাও। তাঁদের দাবি পূরণ না হলে ভোট বয়কটের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এলাকার সর্বত্র পানীয় জল পরিষেবা পৌঁছায়নি। অনেককেই বাধ্য হয়ে কুয়ো কিংবা নলকূপের অপরিশ্রুত জল পান করতে হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকদের বাড়িতে পিএইচই-র পানীয় জল পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। এলাকার কংগ্রেস নেতা আজাদুল ইসলাম বাদশা জানান, অনেকেই রয়েছেন যাঁরা বিরোধী দল করেন তাঁদের বাড়িতে পানীয় জলের পরিষেবা পৌঁছোচ্ছে না। এইনিয়ে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। এদিন সেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটে।
এইবিষয়ে জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের এক অধিকারিক জানিয়েছেন, ওই এলাকার সর্বত্র মূল পাইপ লাইন পাতার কাজ শেষ হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই তাই যেখানে মেইন লাইন এখনও পৌঁছায়নি সেখানকার মানুষ পরিষেবা পাচ্ছেন না। তবে বিষয়গুলি সম্পর্কে তাঁরা অবগত রয়েছেন। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।

- Advertisement -

বামফ্রণ্টের নেতা তথা সারাভারত ফরওয়ার্ড ব্লকের মেখলিগঞ্জ লোকাল কমিটির সম্পাদক অজিত বর্মন জানান, পানীয় জল পরিষেবা নিয়ে গোটা ব্লকজুড়ে মানুষের ক্ষোভ রয়েছে। এটা নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে দলবাজি করার অভিযোগের ঘটনা নতুন কিছু নয়। সমস্ত অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য তথা স্থানীয় তৃণমূল নেতা রজত রায়। তাঁর বক্তব্য, মুখ চিনে পানীয় জলের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে এটা সম্পূর্ণ মিথ্যে। মেইন লাইন না পৌঁছোনোর কারণে কয়েকটি বাড়িতে পানীয় জলের পরিষেবা এখনও পৌঁছায়নি। এই বিষয়ে তাঁরাও অবগত। এই বিষয়ে মেখলিগগঞ্জের বিডিও অরুণ কুমার সামন্তর সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ না হওয়ায় কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।