ফালাকাটায় লকডাউন চেয়ে প্রশাসনের কাছে আর্জি

479

সুকমল ঘোষ, ফালাকাটা: ফালাকাটায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রামিতের সংখ্যা। দু-তিন আগেই ফালাকাটার এক ওষুধ ব্যবসায়ী সহ তাঁর পরিবারের ৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে বাসিন্দাদের পাশাপাশি ফালাকাটার ব্যবসায়ীরাও চিন্তিত। এই পরিস্থিতিতে ফালাকাটায় ফের লকডাউন চেয়ে সোমবার ব্লক প্রশাসনের দ্বারস্থ হল ফালাকাটা ব্যবসায়ী সমিতি। অন্তত ৭ দিনের জন্য ফালাকাটায় সম্পূর্ণ লকডাউনের আর্জি জানানো হয়েছে। এদিন সমিতি অফিসে ফালাকাটা ব্যবসায়ী সমিতির কার্যকরী কমিটির এক জরুরী সভা বসে। ফালাকাটা হাট ব্যবসায়ী সমিতি ও বিসিডিএ-র কর্মকর্তারাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

ফালাকাটায় যেভাবে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে তাতে এদিন উদ্বেগ প্রকাশ করেন ব্যবসায়ীরা। তাঁরা ফের লকডাউনের পক্ষে সওয়াল করেছেন। ব্যবসায়ী ও বাসিন্দাদের সুরক্ষায় সাতদিন সমস্ত দোকান ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের ঝাপ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সমিতির ওই সভায়। এরপরই ব্যবসায়ী সমিতির এক প্রতিনিধি দল বিডিওর সঙ্গে দেখা করে ফালাকাটায় সাতদিন সম্পূর্ণ লকডাউনের আর্জি জানান। ফালাকাটা ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক নান্টু তালুকদার বলেন,

- Advertisement -

‘সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ী সকলের সুরক্ষার জন্য ফালাকাটায় অন্তত সাতদিন সম্পূর্ণ লকডাউন প্রয়োজন। আমরা সমিতির তরফে আলোচনা করে সমস্ত দোকান ও ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ৭ দিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বিডিও সুপ্রতীক মজুমদার জানিয়েছেন, জেলাশাসকের সম্মতি নিয়ে  ফালাকাটা হাসপাতাল রোড সহ সংক্রামিত এলাকাগুলি খুব দ্রুতই কনটেনমেন্ট জোন করা হবে। লকডাউনের প্রয়োজনীয়তা মেনে নিলেও তিনি বলেন, ’বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন। নির্দেশ পেলেই ওই বিষয়ে পদক্ষেপ করা হবে৷’

অন্যদিকে, এদিন রাতে ব্যবসায়ী সমিতির তরফে মাইকিং করে জানানো হয়েছে, আগামী বুধবার থেকে রবিবার পর্যন্ত ৫ দিন ফালাকাটার সমস্ত ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। মদের দোকান, শপিংমল বন্ধ থাকবে সব কিছুই। তবে কিছু সংখ্যক ওষুধের দোকান শুধু খোলা থাকবে।