নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগে বিক্ষোভ

214

চাঁচল: নির্মাণের এক সপ্তাহের মধ্যেই বেরিয়ে এসেছে রাস্তার কঙ্কালসার চেহারা। সেকারণে রাস্তা পুনর্নির্মাণের দাবিতে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শনিবার চাঁচল ১ ব্লকের মকদমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গৌড়িয়ায় ঘটনাটি ঘটেছে। অভিযোগ, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে গ্রামের সিমেন্ট কংক্রিটের রাস্তার কাজ হয়েছে। যার ফলে নির্মাণের সাতদিনের মধ্যেই বেহাল হয়ে পড়েছে রাস্তা। উঠে এসেছে কংক্রিটের চাদর, তৈরি হয়েছে গর্ত। এদিন বিক্ষোভের পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দারা বিডিওর কাছে রাস্তা পুনর্নির্মাণের দাবি জানান। নিম্নমানের কাজের জন্য তাঁরা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। যদিও প্রধানের দাবি, শিডিউল মেনেই কাজ হয়েছে।

গ্রাম পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গিয়েছে, একশো দিনের প্রকল্পে গৌড়িয়া গ্রামের মনওয়ারুল আলমের বাড়ি থেকে দানেশ আলির বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ২০০ মিটার সিমেন্ট কংক্রিটের রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এই প্রকল্পে বরাদ্দ ছিল প্রায় তিন লক্ষ টাকা।

- Advertisement -

গৌড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা শেখ মতির অভিযোগ, ঠিক ঠাক কাজ হয়নি। তাই সাতদিনেই রাস্তা বেহাল হয়ে পড়েছে। পুনর্নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন তিনি। অপর বাসিন্দা সাত্তার আলি জানান, মাত্র এক সপ্তাহ হল রাস্তা তৈরি হয়েছে। তার মধ‍্যেই বেরিয়ে এসেছে রাস্তার কঙ্কালসার চেহারা।

এদিন বাসিন্দাদের বিক্ষোভে শামিল হয়েছিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের স্থানীয় নেতৃত্ব। সংগঠনের মকদমপুর অঞ্চল সভাপতি বাপি খান জানান, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। শিডিউল মেনে কাজ হয়নি। সেকারণে বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন।

যদিও প্রধান সহদেবচন্দ্র মণ্ডলের দাবি, শিডিউল মেনেই কাজ হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা মিথ্যা অভিযোগ করছেন। সহদেববাবু রাস্তা সংস্কারের আশ্বাস দিয়েছেন। চাঁচল ১ এর বিডিও সমীরণ ভট্টাচার্য জানান, অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।