খাদ্য সামগ্রী কম দেওয়ার অভিযোগে অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে বিক্ষোভ

566

সামসী: গত তিন মাস ধরে শিশুরা ছোলা ও আলু পাচ্ছে না। চাল এবং ডাল পেলেও তা পরিমানে কম। খাদ্য সামগ্রী পরিমাণে কম দেওয়ার অভিযোগে বুধবার অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে বিক্ষোভে শামিল হলেন অভিভাবকরা। রতুয়া-১ ব্লকের সামসী গ্রাম পঞ্চায়েতের রতনপুর নজরুল কলোনি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের ঘটনা। এইনিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

এদিন ওই অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে বিক্ষোভে শামিল অভিভাবক শেখ কলিমুদ্দিন জানিয়েছেন, গত তিন মাস ধরে এই কেন্দ্রের শতাধিক শিশু ছোলা ও আলু পাচ্ছে না। চাল ও ডাল দেওয়া হলেও পরিমাণে অনেক কম দেওয়া হয়। তিনি বলেন, ‘চাল দুই কেজি এবং ডাল তিনশো গ্রাম করে দেওয়ার কথা থাকলেও এদিন ওই অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে শিশুর অভিভাবকদের চাল দুই কেজি করে দিলেও ডাল তিনশো গ্রামের জায়গায় আড়াইশো গ্রাম করে দেওয়া হয়। এতেই আপত্তি জানান অভিভাবকরা। কিন্তু ওই কেন্দ্রের সহায়িকা কোনও কর্ণপাত করেননি বলে অভিযোগ। তাই সহায়িকাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা।

- Advertisement -

আরও এক অভিভাবক আমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন, শুধু এদিনই নয়, এর আগেও শিশুদের খাদ্য সামগ্রী ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে ওই কেন্দ্রের সহায়িকার বিরুদ্ধে। সিডিপিওকে বিষয়টি একাধিকবার জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাই এদিন অভিভাবকরা বাধ্য হয়ে ওই অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে বিক্ষোভ দেখান। এই বিষয়ে রতনপুর নজরুল কলোনির অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের সহায়িকা মমতা মণ্ডল বলেন, ‘ছোলা এবং আলু সরবরাহ না পাওয়ায় তা দেওয়া হয়নি। পেলে অবশ্যই দেওয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ডাল পরিমাণে কম পেয়েছি। তাই শিশুদের মধ্যে ভাগ করে দিতে গিয়ে পরিমাণে সামান্য কম হয়েছে।’ রতুয়া-১ ব্লকের সিডিপিও গোলাম মাহবুব জানান, ছোলা এবং আলুর যা সরকারি রেট দেওয়া হয়েছে। বাজারে তার থেকে ছোলা এবং আলুর দাম বেশি। তাই সরবরাহ করা হয়নি। বিষয়টি ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তবে রতনপুর নজরুল কলোনি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে ডাল পরিমাণে কম দেওয়ার বিষয়টি অভিভাবকরা জানিয়েছেন। তা গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হবে।