ক্ষতিপূরণের দাবিতে খনি অফিসের সামনে মৃতদেহ রেখে বিক্ষোভ

185

আসানসোল: প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে গিয়ে ইসিএলের ওসিপি বা খোলা মুখ খনিতে পড়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। মৃত যুবকের নাম সমীর বাউরি (৩০)। তিনি আসানসোল উত্তর থানার আরসিআই বাউরি পাড়ার বাসিন্দা। রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোল উত্তর থানার ভানোড়া ওয়েষ্টে। ঘটনার পরেই ক্ষতিপূরণের দাবিতে খনি অফিসের সামনে মৃতদেহ রেখে বিক্ষোভ বসেন মৃতের পরিজন সহ স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় আসানসোল পুরনিগমের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর নরেন্দ্র মূর্মু। পৌঁছায় আসানসোল উত্তর থানার পুলিশ। যদিও শেষ খবর অনুযায়ী ইসিএলের কোন আধিকারিক ঘটনাস্থলে পৌঁছাননি। ফলে ক্ষোভ চরমে পৌঁছায়।

জানা গিয়েছে, একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন ওই যুবক। এদিন দুপুরে প্রকৃতির ডাকে সারা গিতে বাড়ির অদূরে ভানোড়া ওয়েষ্টে খোলা মুখ খনি এলাকায় যান। অসাবধনতাবশত ৩০০ ফুট নিচে পড়ে যায় সে। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। খবর পেতেই তাঁর পরিজন সহ স্থানীয়রা ছুটে যান সেখানে। উদ্ধার করা হয় মৃতদেহ। এরপরেই শুরু হয় ক্ষোভ বিক্ষোভ।

- Advertisement -

নরেন্দ্র মূর্মু বলেন, ইসিএল কতৃপক্ষ আউটসোর্সিং করে কয়লা তোলার পরে কোন নিয়ম মানে না। বড় বড় খাদ তৈরি হয়েছে। সেগুলো ঘেরার কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। ফলস্বরূপ এই মর্মান্তিক ঘটনা। এদিকে ক্ষতিপূরণের দাবি তুলে তিনি বলেন, ওই যুবকের উপার্জনের টাকায় তাদের সংসার চলত। সেক্ষেত্রে ওই যুবকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তরফে।

অন্যদিকে, এবিষয়ে ইসিএলের তরফে কোন আধিকারিক মন্তব্য করতে চাননি। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোটা এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, ইসিএল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হচ্ছে।