বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্না, গ্রেপ্তার তরুণী

306

চাঁচল: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার সহবাসের পরেও বিয়েতে রাজি হননি প্রেমিক। প্রেমিকের অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়েছে জেনে এবার তার বাড়ির সামনে ধর্নায় বসলেন প্রেমিকা। বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিবেশী যুবকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন ওই তরুণী। চাঁচল ২ ব্লকের মালতীপুর জিপির লালগঞ্জে ওই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসলেও পুলিশকে এ ব্যাপারে কিছুই জানাননি ওই তরুণী। উলটে হাত কেটে এলাকায় বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করছিলেন। পরবর্তীতে গতকাল সন্ধ্যায় পুলিশ তরুণীকে আটক করে। শুক্রবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রেমিক ও প্রেমিকার বাড়ি একই এলাকায়। এদিকে তরুণীর বাবা ও ওই যুবক পেশায় পরিযায়ী শ্রমিক। গত দু বছর ধরে যুবকের সঙ্গে তার প্রণয়ের সম্পর্ক রয়েছে। একাধিকবার সহবাসের পরেও যুবকের বাবা-মা বিয়েতে রাজি হচ্ছে না বলে সে বিয়ে করতে অস্বীকার করে। ধর্নায় বসার পর যুবকের মা তাঁকে মারধর করেন বলেও যুবতীর অভিযোগ। এরপরেই বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দেন তরুণী। ব্লেড দিয়ে নিজের হাত কেটে দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ওই তরুণীকে আটক করে।

- Advertisement -

যুবকের মা বলেন, ‘আমার ছেলেকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। আমি ওকে মারধর করিনি। তবে, তরুণীর সঙ্গে অন্যজনের সম্পর্ক রয়েছে। আমাদের কাছে প্রমাণও আছে। যে কেউ এসে বাড়ির সামনে বসে পড়লেই তাকে ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেব এমনটা হয় না।’ তরুণীর মা বলেন, ‘মেয়েকে অন্যত্র বিয়ে দিতে চাইলেও রাজি হয়নি। কিন্তু ছেলেটি আগে বিয়ের কথা বলেও এখন রাজি হচ্ছে না।‘ তরুণী বলেন, ‘ওর সঙ্গে আমার স্ত্রী’র মতো সম্পর্ক ছিল। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার বাইরে নিয়ে গিয়েছে। স্ত্রীর মর্যাদা দিলে প্রয়োজনে আত্মহত্যা করব।‘ চাঁচলের আইসি সুকুমার ঘোষ বলেন, ‘বিষয়টি পুলিশকে জানাতে পারত। তাহলে পুলিশ আইন মাফিক পদক্ষেপ করত। তা না করে মেয়েটি এলাকায় বিশৃঙ্খলা তৈরি করে পরিবেশ নষ্ট করছিল। তরুণীকে বিরুদ্ধে ২৯০ ধারায় এলাকায় গণ্ডগোল, সামাজিক বিশৃঙ্খলা তৈরির অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।‘