শ্বশুরবাড়িতে জায়গা পেতে সন্তানকে নিয়ে ধর্না মহিলার

388

রাজগঞ্জ: স্বামীর বাড়িতে ঢুকতে সন্তানকে নিয়ে ধর্নায় বসলেন স্ত্রী। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটে রাজগঞ্জের ফুলবাড়ি ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্ব ধনতলায়। মূলত শ্বশুর ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বেবি মল্লিক (৩০) নামে ওই মহিলা প্রায় সারাদিন বাড়ির গেটে ধর্নায় বসে থাকলেও তাঁকে ঘরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। তবে, তাঁর স্বামী সন্দীপ মল্লিক (৩৫) গা ঢাকা দিয়েছেন। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যা কাঞ্চন মণ্ডল মহিলার শ্বশুরবাড়ির লোককে বোঝালেও কোনও লাভ হয়নি। ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ। অবশেষে শ্বশুরবাড়ির তরফে এক সপ্তাহের মধ্যে ভাড়াবাড়ি ঠিক করে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়ায় মহিলা ফের বাপের বাড়ি ফিরে যান।

বেবি মল্লিক জানান, তাঁর বাপের বাড়ি শিলিগুড়ির সেবক রোড সংলগ্ন জনতা নগরে। ১১ বছর আগে ফুলবাড়ির পূর্ব ধনতলার সন্দীপের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের কয়েক মাস পর থেকে নানা অজুহাত তুলে মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার শুরু করে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন। স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের উপস্থিতিতে সালিশি সভায় সন্দীপ তাঁর স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে ভাড়াবাড়িতে থাকবেন বলে রাজি হন। এরপর তাকে কয়েক দিনের জন্য বাপের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এরপর থেকে ২২ দিন কেটে গেলেও স্বামীর কোনও খোঁজ নেই বলে জানিয়েছেন বেবী মল্লিক। তাই বাধ্য হয়ে এদিন ধর্নায় বসতে হয়েছে তাঁকে।

- Advertisement -