দুর্নীতির অভিযোগ তুলে গ্রাম প্রধানকে তিন ঘণ্টা আটক করে বিক্ষোভ

567

শীতলকুচি, ১ ডিসেম্বরঃ একশো দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগ এনে স্মারকলিপি জমা করতে গিয়ে বিজেপি কর্মীরা গ্রাম পঞ্চায়েত পঞ্চায়েত প্রধানকে কয়েক ঘণ্টা আটকে রাখলেন। পাশাপাশি, মঙ্গলবার শীতলকুচি ব্লকের ভাঐরথানা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের কাছে গিয়ে কাজের দাবি তোলা হয়েছে। মোট ৭ দফা দাবিতে বিজেপি কর্মীরা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে স্মারকলিপি দিতে ভাঐরথানা বাজার থেকে দপ্তরে সামনে মিছিল করে আসেন।

এদিনের কর্মসূচিতে বিজেপির সংশ্লিষ্ট এলাকার মন্ডল সভাপতি মহেন্দ্র বর্মন, সহসভাপতি পরিমল বর্মন, সম্পাদক নবীন বর্মন প্রমুখ নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। এদিন স্মারকলিপি দিতে এসে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে গ্রাম প্রধান অমল বর্মনকে রেখে বিজেপি কর্মীরা বিক্ষোভ দেখান। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয়। তবে, কোনও বিশৃঙ্খলার খবর মেলেনি।

- Advertisement -

অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ঘটনাস্থলে এদিন শীতলকুচি থানার বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন ছিল। পরে, বিজেপি কর্মীদের পেশ করা স্মারকলিপি গ্রাম প্রধান গ্রহণ করেছেন। তিনি স্মারকলিপিতে উল্লেখিত দাবি পূরণের আশ্বাসও দিয়েছেন বলে বিজেপি দাবি করেছে।

বিজেপির সংশ্লিষ্ট মন্ডলের সম্পাদক নবীন চন্দ্র বর্মনের অভিযোগ, গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান একশো দিনের কাজে দুর্নীতি করছেন। কাজ না করেই বিভিন্ন প্রকল্পের টাকা প্রধান নিজের পরিজনদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এমনকি প্রধান নিজের দপ্তরেও সঠিকমতো আসেন না। এছাড়াও, কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প থেকে সাধারণ মানুষ বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ।

তিনি আরও জানান, পরিযায়ী শ্রমিকদের নতুন জব কার্ড বানিয়ে দেওয়া, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার তালিকা প্রকাশ, জব কার্ডধারী প্রত্যেককে কাজ দেওয়ার দাবি সহ মোট ৭ দফা দাবি নিয়ে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। দাবি পূরণ করা না হলে, আগামীতে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার হুমকি দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব।

গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান অমল বর্মন বলেন, বিজেপির তোলা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। প্রচারে থাকার জন্য পরিকল্পনা করে বিজেপি নেতারা মিথ্যে অভিযোগ তুলছেন। পর্যায়ক্রমে সমস্ত শ্রমিকদের কাজ দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।