গাড়ির শেডে বিধ্বংসী আগুন, পুড়ে ছাই অসংখ্য সাইকেল ও মোটরবাইক

197

বর্ধমান: বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই রেলস্টেশন সংলগ্ন কারশেড। ঘটনাটি ঘটেছে, বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলীর স্টেশন লাগোয়া একটি গাড়ি রাখার স্ট্যান্ডে। ওই স্ট্যান্ডে থাকা একাধিক সাইকেল ও মোটর বাইক পুড়ে ছাই হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয়দের একাংশ সূত্রে খবর, স্টেশন এলাকায় থাকা মানুষজন প্রথম আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগান। কিন্তু তাঁরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়না। পরে দমকলের দুটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে বেশ কিছুক্ষনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তারই মধ্যে গাড়ির স্ট্যান্ডে থাকা সমস্ত মোটরবাইক ও সাইকেল সবই পুড়ে নষ্ট হয়ে যায়। কিভাবে আগুন লাগল তার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

- Advertisement -

পুলিশ ও স্থানীয়দের একাংশের তরফে জানা গিয়েছে, অন্য দিনগুলির মতো এদিনও নিত্যযাত্রীরা সকালে পূর্বস্থলী রেলস্টেশন লাগোয়া গাড়ি রাখার স্ট্যান্ডে তাঁদের সাইকেল ও মোটরবাইক রেখে ট্রেনে চেপে কর্মস্থলের রওনা দেন। এরপর বেলা সাড়ে ১১টার পর হঠাৎই গাড়ির স্ট্যান্ডের খড়ের চালায় ও প্লাস্টিকের ছাউনিতে দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে শুরু করে। স্টেশন চত্বরে থাকা মানুষজন কিছু বুঝে ওঠার আগে মুহূর্তে মধ্যে আগুন ভয়াবহ আকার নেয়। তা দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্টেশন এলাকায় থাকা মানুষজন।

অন্যদিকে, ঘটনার খবর পেয়ে পূর্বস্থলী থানার পুলিশ ও রেলপুলিশ সেখানে পৌঁছোয়। তাঁরা দমকলে খবর দিলে দমকলের দুটি ইঞ্জিন দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তারমধ্যেই সাইকেল ও মোটরবাইক মিলে প্রায় ৫০টি গাড়ি আগুনে পুড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আগুন নেভানো কাজে হাত লাগানো ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, গাড়ির স্ট্যান্ডটির খানিকটা দূরে একটি নার্সারি রয়েছে। এদিন বেলায় সেখানে আবর্জনা বা অন্যকিছু পোড়ানো হচ্ছিল। সেই আগুনের ফুলকি গাড়ির স্ট্যান্ডের খড়ের চালায় উড়ে এসে পড়াতেই এতো বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে যায় বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। যদিও পূর্বস্থলী থানার পুলিশ এবং রেলপুলিশ আগুন লাগার কারণ খতিয়ে দেখছে।