লটারি বিক্রেতার গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য

438

বর্ধমান, ৫ মেঃ নির্জন আমবাগান থেকে এক লটারি টিকিট বিক্রেতার গলার নলি কাটা মৃতদেহ উদ্ধার হল। মৃত মধুসুদন বাউরি (২৮) পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রাম থানার ভাল্কী পঞ্চায়েতের জামতারা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। মঙ্গলবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। মৃতের বাড়ির অদূরের একটি আমবাগান ঘেরা নির্জন এলাকায় ওই যুবকের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে আউশগ্রাম থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য এদিনই মৃতদেহ বর্ধমান হাসপাতাল পুলিশ মর্গে পাঠানো হয়েছ। এদিকে মৃতের পরিবার মধুসুদনকে খুন করা হয়েছে বলে লোকজন দাবী করেছেন।এদিন বিকেল পর্যন্ত থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। আউসগ্রাম থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, লটারি বিক্রেতা মধুসুদন বাউরির উপার্জন ভাল ছিল না। সংসারে অভাব ছিল। সেই কারণে স্ত্রী প্রীতি বাউড়ির সঙ্গে তাঁর অশান্তি লেগেই থাকত। অন্য পুরুষের সঙ্গে প্রীতি অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল বলে প্রতিবেশীরা পুলিশকে জানিয়েছেন। মৃতের বাবা নাড়ু বাউড়ি এবং মা কালি বাউরি জানিয়েছেন, বছর সাতেক আগে মানকরের তরুণী প্রীতির সঙ্গে তাঁর ছেলের বিয়ে হয়। তাঁদের নাবালক ১ পুত্র এবং ১ কন্যা সন্তান আছে। ছেলের ভালো রোজগার না থাকায়, তাঁদের ছেলের সঙ্গে বৌমার প্রায়ই অশান্তি হত। তবে, সোমবার রাতে ছেলে-বৌমার মধ্যে কিছু সমস্যা হয়েছিল কিনা সেবিষয়ে তাঁরা কিছু জানাতে পারেননি। বাড়ি থেকে মাত্র ২০০ মিটার দূরের আমবাগানে তাঁদের ছেলের গলাকাটা রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। নাড়ু বাউরির অভিযোগ, মৃতদেহ দেখে তাঁর মনে হয়েছে, মধুসুদনকে খুন করা হয়েছে।

- Advertisement -

ডিএসপি-ডিএনটি অরিজিৎ পাল চৌধুরী জানিয়েছেন, যুবকের গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। যুবকে খুন করা হয়েছে বলেই প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। তদন্ত শুরু হয়েছে। সন্দেহভাজন ২ জনকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়েছে।